যে টাকা খরচ করে বিলাসবহুল বিমান চড়ছেন, ঐ টাকায় ১০০ হাসপাতাল তৈরি করা যেত: প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা অভিষেকের

যে টাকা খরচ করে বিলাসবহুল বিমান চড়ছেন, ঐ টাকায় ১০০ হাসপাতাল তৈরি করা যেত: প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা অভিষেকের

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: যে টাকা খরচ করে বিলাসবহুল বিমান বানিয়েছেন, ওই টাকা হাসপাতাল তৈরিতে খরচ হলে দেশে এই রকম করোনা সঙ্কট দেখা দিত না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি। রবিবার বনগাঁ উত্তরের জনসভায় মমতার সুরেই অভিষেকের বক্তব্য, আজ বিজেপির জন্য দেশের অতিমারী এত তীব্র আকার ধারণ করেছে।

দেশে এবং রাজ্যেও করোনা সঙ্কটের জন্য মোদি সরকার তথা বিজেপি নেতৃত্বকেই দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এদিন অভিষেক বলেন, ‘‌ওঁরা শুধু মন্দির–মসজিদের রাজনীতি করে গেছে। কোনও উন্নয়ন করেনি।’ উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘‌ওখানে মড়ক লেখেছে। শ্মশানে মড়া পোড়ানোর জায়গা নেই। সার বেধে অ্যাম্বুলেন্স দাঁড়িয়ে আছে দেহ নিয়ে।’‌

গুজরাটের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের তুলনা টেনে বলেন, ‘‌ব্লকে ব্লকে, বিধানসভা কেন্দ্রে মাল্টিস্পেশ্যালিটি হাসপাতাল গড়ে দিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। এখন বাংলায় করোনার চিকিৎসার জন্য ১ লক্ষের উপর শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে, যেখানে গুজরাটে মাত্র ২০ হাজার।’‌

জনতার করের টাকায় সাড়ে আট হাজার কোটি খরচ করে নিজের জন্য বিলাসবহুল বিমান বানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। ওই টাকায় অন্তত শ’‌খানেক হাসপাতাল গড়া যেত দেশে, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। বলেন, ‘‌প্রত্যেকটা হাসপাতালে ১০০টা করে শয্যা হলে ১০ হাজার শয্যা বাড়ানো যেত।

২০ হাজার কোটি টাকা খরচ করে দিল্লিতে নতুন সংসদভবন বানানো হচ্ছে। তাতে ২০০টা হাসপাতাল হত। কমপক্ষে ২০ হাজার শয্যা বাড়ত। আমার আপনার টাকায় ফুর্তি করে ১৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে দিল্লিতে দলের কার্যালয় তৈরি করেছেন। তা হলে আপনারাই ঠিক করুন, কাকে ভোট দেবেন, সাড়ে ৮ হাজার কোটি টাকার বিমানে চেপে ঘোরা নেতাকে নাকি টালির ছাদের নীচে, হাওয়াই চটি পরা মহিলাকে, যিনি আপনাদের ১ লক্ষ শয্যা তৈরি করে দিয়েছেন।’