১৯৪২ এর আগষ্টে ‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলনের স্লোগান তুলেছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী ইউসুফ মেহের আলি

১৯৪২ সালে ‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলনের স্লোগান তুলেছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী ইউসুফ মেহের আলি

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ১৯৪২ সালে ঐতিহাসিক ভারত ছাড়ো আন্দোলনের ‘ভারত ছাড়ো’ (Quit India) স্লোগানটি প্রথম ব্যবহার করেছিলেন কগ্রেস নেতা স্বাধীনতা সংগ্রামী ইউসুফ মেহের আলি৷ ১৯৪২ সালের ৮ অগস্ট গান্ধাজি মুম্বইয়ের গোয়ালিয়া ট্যাঙ্ক ময়দানে সর্বভারতীয় কংগ্রেস কমিটির বৈঠকে ‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলনের সূচনা করেছিলেন৷ সেই আন্দোলনের সময়ই তিনি ডাক দেন ‘‘করেঙ্গে ইয়ে মরেঙ্গে’’৷

শুধু তাই নয় গান্ধাজির গ্রেফতারের পরেও কয়েক মাস ধরে গোটা ভারতরবর্ষ জুড়ে ব্রিটিশ বিরোধী এই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়তে দেখা গিয়েছিল৷ কিন্তু এই ‘ভারত ছাড়ো’ স্লোগানটি ইউসুফ মেহের আলি নামে এক কংগ্রেস নেতার উদ্ভাবন৷‘ভারত ছাড়ো’ এবং ‘সাইমন গো ব্যাক’ স্লোগান প্রথম দিয়েছিলেন ইউসুফ মেহের আলি। তিনি ১৯০৩ সালে ২৩ সেপ্টেম্বর মুম্বাইতে জন্মগ্রহণ করেন।

কে গোপালস্বামীর লেখা ‘Gandhi and Bombay’ অনুসারে একেবারে পরাধীন ভারতের শেষ কয়েকটা বছর এই ‘ভারত ছাড়ো’ স্লোগানটি দেশজুড়ে আধিপত্য বিস্তার লাভ করেছিল৷ সেখানে বলা হয়েছে, শান্তিকুমার মোরারজির রেকর্ড অনুসারে গান্ধীজি তাঁর সহকর্মীদের বলেছিলেন স্বাধীনতার জন্য শ্রেষ্ঠ স্লোগান তৈরি করার৷ প্রথমে একজন করেছিলেন ‘বেরিয়ে যাও’( ‘Get out’) ৷ কিন্তু সেটা গান্ধাজির পছন্দ হয়নি৷ রাজা গোপালাচারি বলেছিলেন ‘অপসরণ অথবা প্রত্যাহার’ (Retreat’ or ‘Withdraw)৷ কিন্তু সেটাও গান্ধীজির মনোমত হয়নি৷ অবশেষে ইউসুফ মেহের আলি দিয়েছিলেন ‘ভারত ছাড়ো’ (QUIT INDIA) সেটা গান্ধীজি অনুমোদন করেন৷

‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলন শুরুর বেশ কিছু দিন আগে মুম্বইতে গান্ধাজির ঘনিষ্ঠদের নিয়ে কংগ্রসের এক বৈঠকে এই শব্দ দুটি ব্যবহার করেছিলেন ইউসুফ মেহের আলি, তিনি সেই সময় মুম্বইয়ের মেয়র ছিলেন৷

স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় ইংরেজ বিরোধী লড়াইয়ের জন্য ইউসুফ মেহার আলি আটবার জেলে যান৷ গান্ধীজির সঙ্গে মেহের আলিও ১৯৪২ সালের ৯ অগস্ট গ্রেফতার হয়েছিলেন৷ পরে ১৯৪৬ সালে তিনি জেল থেকে ছাড়া পান।

তিনি স্বাধীন ভারতে বিধায়ক ও হয়েছিলেন৷ তিনি ন্যাশনল মিলিটিয়া, মুম্বাই ইউথ লিগ ও কংগ্রেস সোশালিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা৷ ২ জুলাই ১৯৫০ সালে মুম্বইতে তাঁর মৃত্যু হয়৷

১৯৪২ সালে আন্দোলন শুরুর আগে ‘ভারত ছাড়ো’ নামে একটি বুকলেট প্রকাশ করা হয়৷ যা কয়েক সপ্তাহের মধ্যে বিক্রি হয়ে গিয়েছিল৷ তাছাড়া ৭ অগস্ট কংগ্রেস কমিটি বৈঠক শুরুর আগেই এই স্লোগানকে জনপ্রিয় করতে ‘ভারত ছাড়ো’ ব্যাচ ছাপানো হয়েছিল-এ কথা জানিয়েছেন ইউসুফ মেহের আলি সেন্টারের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা জিসি পারেখ৷

তার লেখা উল্লেখযোগ্য কয়েকটি গ্রন্থ
What to Read: A Study Syllabus (1937)
Leaders of India (1942)
A Trip to Pakistan (1944)
The Modern World: A Political Study Syllabus, Part 1 (1945)
The Price of Liberty (1948)
Underground Movement(1942)