লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে থাকার জন্য রাষ্ট্রসংঘের বিশেষ সন্মানে ভূষিত অভিনেতা সোনু সুদ

লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে থাকার জন্য রাষ্ট্রসংঘের বিশেষ সন্মানে ভূষিত অভিনেতা সোনু সুদ

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ভিলেন নন, বাস্তবে সোনু অনেক মানুষের কাছে শুধুই হিরো নন, সুপার হিরো। রিল লাইফের ভিলেন, রিয়েল লাইফের সুপার হিরো। আর এই বাস্তব জীবনের হিরোকে কিন্তু গত ৬টা মাস সুপারহিরো বানিয়ে দিয়েছে।

সোনু সুদ এমন এক মানুষ যিনি করোনার জন্য লকডাউনে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর বড় দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন।

লকডাউনে বহু মানুষ কাজ হারিয়েছিলেন রাতারাতি। পরিবার নিয়ে বাড়ি ফেরারও উপায় ছিলনা। পকেটে টাকা নেই। ২ বেলা খাবেন কী জানেন না। বাড়ি যে ফিরে যাবেন তারও উপায় নেই। এমন অগুন্তি পরিযায়ী শ্রমিক ও তাঁদের পরিবারকে ঘরে ফেরানোর ব্যবস্থা করেন সোনু সুদ।

পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর সময় নিজেও অক্লান্ত পরিশ্রম করেন সোনু। নিজে পুরো ব্যবস্থা অনেক জায়গায় তদারকি করেন। বিভিন্ন জায়গায় দল তৈরি করে তাঁদের দিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরার ব্যবস্থা করে দেন।

কাউকে বাসে, কাউকে ট্রেন চালুর পর ট্রেনে, এমনকি অনেককে প্লেনেও বাড়ি ফেরান সোনু সুদ। দুহাত খুলে খরচ করে যান পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর জন্য।

সোনুর এই কাজের খবর সংবাদমাধ্যমের নজর এড়ায়নি। ফলে খবরের শিরোনামে অচিরেই জায়গা করে নেয় সোনু সুদের এই মানবিক আচরণ।

সোনু সুদের এই মানবিক আচরণের কথা দেশের সীমা পার করে যে রাষ্ট্রসংঘের কাছেও পৌঁছেছে তার প্রমাণ মিলল এবার। রাষ্ট্রসংঘের থেকে এক বিরল সম্মানে ভূষিত হলেন তিনি। ইউনাইটেড নেশনস ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম বা ইউএনডিপি-র তরফ থেকে স্পেশাল হিউম্যানিটেরিয়ান অ্যাকশন অ্যাওয়ার্ড সম্মান এল সোনু সুদের ঝুলিতে।

করোনা লকডাউনের কঠিন সময়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর যে লড়াই সোনু সুদ দিয়েছেন তারই যোগ্য সম্মান পেলেন এই ভারতীয় চিত্রতারকা। সোনু জানিয়েছেন, তিনি তাঁর দেশবাসীর জন্য যে সামান্য কিছু কাজ করেছেন তা কিছু পাওয়ার আশায় করেননি। তবে এই সম্মান পেয়ে তিনি খুশি।