ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসায় ভুগোল শিক্ষক নিয়োগে ১২ জনের সকলে অমুসলিম: সোস্যাল মিডিয়া জুড়ে মুসলিম তোষণের আলোচনা

    ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসায় ভুগোল শিক্ষক নিয়োগে ১২ জনের সকলে অমুসলিম: সোস্যাল মিডিয়া জুড়ে মুসলিম তোষণের আলোচনা

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সংখ্যালঘু ও মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তর পরিচালিত রাজ্যের ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসা ( যেগুলো সরকার নতুন করছে ) গুলোতে শিক্ষক নিয়োগ এর জন্য পাবলিক সার্ভিস কমিশন গতকাল একটা মেরিট লিস্ট প্রকাশ করেছে। যেখানে ভুগোল বিষয়ের শিক্ষক হিসাবে ১২ জনের মধ্যে ১২ জন অমুসলিম নাম এসেছে। যা প্রকাশ্যে আসতে সোস্যাল মিডিয়া জুড়ে আলোচনা সমালোচনা। প্রশ্ন তোলা হয়েছে যে ইন্টারভিউতে অনেক মুসলিম থাকার পরও মেরিট লিস্ট এ মুসলিমদের ইচ্ছে করেই বাদ দেওয়া হয়েছে। মাদ্রাসার লিস্ট এ এভাবে মুসলিমদের বঞ্চিত করার বিরুদ্ধে মমতা সরকারের মেকি মুসলিম তোষণ নিয়ে সমালোচনা সোস্যাল মিডিয়া জুড়ে। যার কিছু জনের আলোচনা এখানে তুলে ধরা হল।

    ভুগোলের মেরিট লিস্ট

    মালদা থেকে জনৈক মনসুর রহমান লেখেন: আমি কিছু বলবো না, কারণ আমি ঠিকাদার নয়, কারা যেন বলছিল মুসলিম তোষণের কথা। রাজ্যের ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগে ১২ জন ক্যান্ডিডেটের মধ্যে একটি ও স্থান পেল না। যদিও যারা ইন্টারভিউ দিয়েছিল তাদের অধিকাংশই মুসলিম ছিল। বিষয়টা হালকা করে নিবেন না ভাবার বিষয়। যদি হালকা করে নেন তাহলে চাকরি নামক জিনিসটা আপনার তো হবেই না আপনার সন্তান-সন্ততির ও হবেনা।

    হাওড়ার জনৈক শিক্ষক মহঃ কলিমুল্লাহ লেখেন: সংখ্যালঘু দফতরের আন্ডারে রাজ্যের ইংরেজি মিডিয়াম হাই মাদ্রাসায় ভূগোল বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগ।
    যাঁরা চাকরি পাচ্ছেন তাদের তালিকা দেখুন আর কিছু ভাবুন, বেশি কিছু বলতে চাইনা কারণ বিজেপি চলে আসবে !

    উঃ ২৪ পরগনার জনৈক শিক্ষক ইত্তহাদুল হক লেখেন: সংখ্যা লঘু দের নিয়ে মারি ভাষণ
    ভোট চাই ষোলআনা।
    মুখে বলি দিয়েছি সংরক্ষণ
    কাজের বেলায় ফাঁকা —
    স্বজন পোষণ আর কত কাল?

    মুর্শিদাবাদের জনৈক শিক্ষক মোশারফ হোসেন লেখেন: মাদ্রাসাতে নিয়োগ যদি জাতি-ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে মেধার ভিত্তিতে হয়। তাহলে রামকৃষ্ণ মিশন গুলোতে নয় কেন? বেতন তো সরকারই দেয় !!

    মালদার জনৈক শিক্ষক মতিউর রহমান লেখেন: আন্দোলনকারী হবু শিক্ষকদের মেরে গায়েব করেছিল এই সরকার,MSC পাস শিক্ষকরা চাকরী না পেয়ে শ্রমিকের কাজ করছে,গতকাল PSC দ্বারা হাই মাদ্রাসায় ১২জন শিক্ষক নিয়োগ হল একজনও মুসলিম নেই, এবার বুঝেন কেন চাকরিতে মুসলিমদের শতাংশ কমছে।

    উঃ ২৪ পরগনার জনৈক শিক্ষক সফিকুল গোলদার লেখেন: ইংরাজি মাধ্যম মাদ্রাসায় সদ্য নিয়োগ হয়েছে!যার ১০০% অমুসলিম!
    দরদ!দরদের বহর দেখতে থাকুন। কিছু চাটুকার এসব দেখতে পাইনা!
    বিজেপির গোবরভক্ত আর এদের “কমিশন”খোর ভক্তদের মাঝে কোনো পার্থক্য করতে পারবেন না! সবই ভক্ত।
    সবই মিলেমিশে বিজেমূল। ভোটে জিতে কিছু এদিকে আর কিছু ওদিকে চলে যাবে।
    তাই বিবেচনা আর সিদ্ধান্ত আপনাকেই নিতে হবে।আপনার সিদ্ধান্তই জাতিকে মুক্তির পথ দেখাবে ।

    জনৈক রবিউল ইসলাম লেখেন: ও কাকা এটা কী হল? এমনিতেই তৃণমূল সরকার আসার পর মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন শেষ। আবার এদিকে PSC এর মাধ্যমে ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসা শিক্ষক নিয়োগে ১২ জন শিক্ষক নিয়োগে একটিও মুসলিম নেই। এগিয়ে বাংলা, মুসলিম মারো তালি, নাহলে বিজেপি চলে আসবে।

    জনৈক আরাফাত ইসলাম লিখেছেন: যেসব মুসলিম মমতা ব্যানার্জিকে তাদের মসীহা মনে করত তাদের জন্য বড় উপহার। ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসায় ১২ জন শিক্ষক নিয়োগে আপনাদের কথা যথার্থ ভেবেছেন।

    জনৈক সাফিউর রহমান আক্ষেপ করে লিখেছেন: জনদরদী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মাসিহা , পিসিহা রাজ্যের ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগ দেখেনিন লিস্ট ১২ জন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের স্যারের নাম।

    জনৈক আসরাফ খান লিখেছেন: চুপ করুন বিজেপি চলে আসবে। রাজ্যের ইংলিশ মিডিয়াম মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগ ও দিদির মুসলিম তোষণ।

    পাশাপাশি । ইংরেজি এবং অঙ্ক এই দুই বিষয়ে ১২ জন করে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে। তার মেরিট লিস্ট কাল পাবলিক সার্ভিস কমিশন বের করেছে। সেই লিস্টে ইংরেজিতে ১২ জনের মধ্যে ৭ জন অমুসলিম, অঙ্কে ১২জনের মধ্যে ৮ জন অমুসলিম। মোট ২৪ জনের মধ্যে ১৫ জন অমুসলিম। এবং ভুগোল বিষয়ে ১২ জনে ১২ জন অমুসলিম। যা নিয়ে আলোচনা সোস্যাল মিডিয়া জুড়ে।