হিজাব পরা চাকরি প্রার্থীদের পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ রিক্রুটমেন্ট পরীক্ষার অ্যাডমিট বাতিলের অভিযোগ

হিজাব পরা চাকরি প্রার্থীদের পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ রিক্রুটমেন্ট পরীক্ষার অ্যাডমিট বাতিলের অভিযোগ

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: উত্তরপ্রদেশ সহ গো-বলয়ের ছায়া এবার তৃণমূল শাসিত বাংলায়। হিজাব পরা ছবি আপলোড করার জন্য বাতিল করে দেওয়া হল পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের কনস্টেবল পদের জন্য আবেদনকারী কয়েকজন মুসলিম মেয়েদের আবেদনপত্র। গত ৬ সেপ্টেম্বর থেকে এই পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার জন্য অ্যাডমিট দেওয়া শুরু হয়েছে। পরীক্ষা হবে ২৬ সেপ্টেম্বর। এই পরিস্থিতিতে ফর্ম সংশোধনের কোনো সুযোগ দিচ্ছেনা ওয়েস্ট বেঙ্গল পুলিশ রিক্রুইটমেন্ট বোর্ড। ফলে সম্ভবত এবছর পরীক্ষা দেওয়ার আর সুযোগ থাকছেনা আবেদনকারী ওই মেয়েদের।

সল্টলেকে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের বোর্ডের দফতরে যান ওই চাকরি প্রার্থীরা। দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে, রাজি হয়নি বলে জানিয়েছেন তাঁরা। এমনকি তাঁদের গ্রেফতারেরও হুমকি দেওয়া হয়। তবে জানা গিয়েছে, হিজাব পরিহিত আবেদনকারী অনেকজন মেয়ের ফর্ম বাতিল করা হয়েছে। কারণ হিসাবে বলা হয়েছে, ফর্মের ছবিতে চুল ঢাকার জন্য বাতিল করা হয়েছে। অর্থাৎ, চুল খোলা অবস্থার ছবি দিতে হবে। আর এই বাতিলের কারণ শুনেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন চাকরি প্রার্থীরা। তুহিনা, সারিকা, সোনামনি, ফেরদৌসি, মহসিনা নামে কয়েকজন আবেদনকারীদের প্রত্যেকের ফর্ম বাতিল করা হয়েছে হিজাব পরার জন্য।

আবেদনকারীদের মধ্যে তুহিনা খাতুন প্রশ্ন তুলে বলেন, “বারবার ফর্ম ফিল আপ করার পরও বাতিল করে দেওয়া হল। তাহলে বোর্ড কেন বললোনা হিজাবধারী মহিলারা পুলিশ পেশায় আসতে পারবেনা?” কিংবা ফর্ম ফিলাপের আগে যদি বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হতো তাহলে এবিষয়ে আগেই আমরা সতর্ক থাকতাম। সেই সাথে তাঁর আরও সংযোজন, “আমি তো সাব-ইনস্পেক্টর পদেও আবেদন করেছি, সেই পরীক্ষাও তো দিতে পারবোনা। অনেক জায়গায় হিজাব পরেই রান করেছি, সেখানে গ্রহণ করেছে। তবে এখানে বাতিল কেন? আগে কেন জানানো হয়নি?”

আবেদনকারী আরেকজন মেয়ের কথায়, “সামান্য ঘোমটা দেওয়ার জন্য আবেদনপত্র বাতিল করা হয়েছে। তাহলে মুসলিমরা কি পুলিশ হতে পারবেনা? এমনকি আধিকারিকরা নাম, ঠিকানা নিয়ে জীবন বরবাদ করার হুমকি দিয়েছে। বলেছে, চাকরির আর মুখ দেখতে পারবেনা।” ওই আবেদনকারীরা জানিয়েছেন, পরীক্ষার এখনও সময় রয়েছে। বোর্ড সবার অ্যাডমিট দেওয়ার ব্যবস্থা করুক, যাতে সবাই পরীক্ষায় বসতে পারে, আবেদন চাকরি প্রার্থীদের।