প্রথমে জয় দেখালেও শেষমেষ নন্দীগ্রামে পরাজিত মমতা ব্যানার্জি

    প্রথমে জয় দেখালেও শেষমেষ নন্দীগ্রামে পরাজিত মমতা ব্যানার্জি

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: শেষ পর্যন্ত নন্দীগ্রামে পরাজিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জিতলেন শুভেন্দু অধিকারী। গণনার শুরুটা হয়েছিল হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দিয়ে। তবে শেষমেষ বাজি মাত বিজেপি প্রার্থীরই। এদিন সকালে ছক ভেঙে পোস্টাল ব্যালটে তৃণমূলের এগিয়ে থাকার প্রবণতা শুরু থেকেই দেখা গিয়েছিল।

    নন্দীগ্রাম নিয়ে চরম বিভ্রান্তি। ১৭ রাউন্ড ভোটগণনার পর তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেখানে জয়ী হয়েছেন বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু সন্ধ্যা গড়াতে মমতার জয় নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। বলা হয়, সার্ভারে সমস্যার জেরে সঠিক ভাবে কিছু জানা যাচ্ছে না। শুভেন্দু অধিকারীর জয়ের খবর আসে। তার পর সাংবাদিক বৈঠকে নন্দীগ্রামে হেরে গিয়েছেন বলে জানান মমতা। তিনি বলেন, ‘‘নন্দীগ্রাম যা রায় দেব, মাথা পেতে নেব।’’

    ১৭ রাউন্ড শেষে ফিগারটা এমন দাঁড়িয়েছে- শুভেন্দু অধিকারী ১০৯৬৭৩, মমতা ব্যানার্জি ১০৭৯৩৭, মীনাক্ষী মুখার্জি ৬১৯৮, নোটা ভোট পেয়েছে ১০৮০। ১৭৩৬ ভোটে জয় পেয়েছে বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী। ফলাফল নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হওয়ায় পূনঃগণণার দাবি উঠে। তবে শেষমেষ নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দেয় আর গণণার প্রয়োজন নেই।

    তবে তৃণমূলের তরফে জানানো হয়, নন্দীগ্রামে গণনা এখনও চলছে। কোনও রকম জল্পনায় কান না দেওয়ার জন্যও অনুরোধ করা হয় ওই টুইটে।

    বেলা বাড়তেই এগিয়ে থাকার নিরিখে ব্যবধান বাড়াতে থাকে তৃণমূল। দুপুর ১২টা বাজতেই বাংলার ভোট কাঙ্খিত লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে তৃণমূল কংগ্রেস। ট্রেন্ডের নিরিখে ২০০-র বেশি আসনে এগিয়ে যায় তৃণমূল। সরকার গড়ার স্বপ্ন তো দূর, প্রশান্ত কিশোরের কথামতো ১০০-র বেশ কিছুটা আগেই থমকে যাওয়ার পথে বিজেপি।

    সূত্র দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস