শিখ ধর্মাবলম্বীদের খালিস্তানি সন্ত্রাসবাদী বলে আক্রমণ: অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের বিরুদ্ধে এফআইআর

শিখ ধর্মাবলম্বীদের খালিস্তানি সন্ত্রাসবাদী বলে আক্রমণ: অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের বিরুদ্ধে এফআইআর

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: মঙ্গলবার অভিনেতা কঙ্গনা রানাওয়াতের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল মুম্বই পুলিস। শিখ ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। সম্প্রতি তাঁর একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ঘিরেই শুরু বিপত্তি। মুম্বইয়ের খার পুলিস স্টেশনে ২৯৫এ ধারায় কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন অমরজিৎ সিং সাঁধু নামের এক ব্যক্তি।

গত ২০ নভেম্বর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে কঙ্গনা রানাওয়াত শিখ ধর্মাবলম্বীদের খালিস্তানি সন্ত্রাসবাদী বলে আখ্যা দেন। তিনি লেখেন যে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী তাদের নিজের জুতোর ভিতর থাকা মশার মতো পিষে মেরেছিলেন। কঙ্গনার এহেন মন্তব্যেই চটেছে শিখ সম্প্রদায়ের মানুষেরা। প্রধানমন্ত্রী কৃষি আইন প্রত্যাহার করার পর  কঙ্গনা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, ‘খালিস্তানি সন্ত্রাসবাদীরা আজ সরকারের হাত মচকে দিল। কিন্তু ভুললে চলবে না,একমাত্র মহিলা প্রধানমন্ত্রী এদের জুতোর নিতে পিষে দিয়েছিল। দেশের টুকরো হতে দেননি তিনি। তাঁর মৃত্যুর এতো বছর পরেও তাঁর নামে ভয় পায় এরা। এদের জন্য এমনই গুরু দরকার।’

রবিবার দিল্লি শিখ গুরুদ্বার ম্যানেজমেন্ট কমিটির প্রেসিডেন্ট মনজিন্দর সিং সিরসা চিঠি লেখেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী দিলীপ ওয়ালস পাটিলকে। কঙ্গনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার দাবি করেন সিরসা। তিনি লেখেন, ইচ্ছে করে বারবার কৃষক আন্দোলনকে খালিস্তানি সন্ত্রাসবাদ বলে দাবি করেন অভিনেতা। পাশাপাশি রাষ্ট্রপতির উদ্দেশ্যে সিরসা লেখেন, যেন অবিলম্বে কঙ্গনা রানাওয়াতের পদ্মশ্রী সম্মান কেড়ে নেওয়া হয়। সোমবার মুম্বইয়ে কঙ্গনার বাড়ির সামনেও বিক্ষোভ দেখান শিখ ধর্মাবলম্বী মানুষেরা।