ভোট-সন্ত্রাসের অভিযোগে সোমবার বাংলা বনধের ডাক বিজেপির! জোর করে বনধের চেষ্টা হলে কড়া ব্যবস্থা: ডিজি

ভোট-সন্ত্রাসের অভিযোগে সোমবার বাংলা বনধের ডাক বিজেপির! জোর করে বনধের চেষ্টা হলে কড়া ব্যবস্থা: ডিজি

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: সোমবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বাংলা বন্‌ধের ডাক দিল বিজেপি। রবিবার রাজ্যে ১০৮ পুরসভায় ছিল নির্বাচন। দিনভর নানা অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। আর ভোটগ্রহণ পর্ব শেষ হতে না হতেই বাংলা বন্‌ধের ডাক দিল গেরুয়া শিবির। শুধু বন্‌ধ ডাকাই নয়, তা সফল করতে রাজ্যের সর্বত্র বিজেপি কর্মীরা পথে নামবেন বলেও গেরুয়া শিবিরের পক্ষে রবিবার জানানো হয়েছে। দিনের শেষে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দফতরেও যায় বিজেপি প্রতিনিধি দল। সেই দলে ছিলেন রাজ্য নেতা শিশির বাজোরিয়া, বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল। চিঠি দিয়ে ১০৮ পুরসভার ভোটই বাতিলের দাবি জানিয়েছে বিজেপি।

এদিকে রাজ্যে পুরসভার নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ভাবেই হয়েছে বলে মনে করেন রাজ্য পুলিশের ডিজি মনোজ মালবীয়। ছোটখাটো ঘটনা সত্ত্বেও মোটের উপর নির্বাচন নির্বিঘ্নেই মিটেছে। রবিবার সন্ধ্যায় এ দাবি করলেন রাজ্য পুলিশের ডিজি মনোজ মালবীয়।

বিরোধীদের মতে, রবিবার সকাল থেকেই পুরনির্বাচনে শাসকদলের সন্ত্রাসের সাক্ষী থেকেছে বাংলা। বুথ দখল, ছাপ্পা ভোট, ইভিএম ভাঙচুর থেকে শুরু করে বোমাবাজি বা প্রার্থীকে মারধর-সহ হিংসার নানা ছবিও দেখা গিয়েছে। যদিও ডিজি-র পাল্টা দাবি, নির্বাচনে ছোটখাটো ঘটনা ছাড়া হিংসার ঘটনা ঘটেনি। ওই ঘটনাগুলির জন্য ৫১ জনকে আটক করা হয়েছে। পাশাপাশি, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে ৭৯৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিজেপির বন্ধ নিয়ে ডিজি-র ‘হুঁশিয়ারি’, জোর বন্‌ধ করানোর চেষ্টা করা হলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে পুলিশ। ডিজি বলেন, ‘‘আগামিকাল, সোমবার সমস্ত সরকারি-বেসরকারি অফিস খোলা থাকবে। জোর করে বন্‌ধ করানো হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’