বিজেপি স্বৈরাচারী শাসন চালাচ্ছেন: বিজেপি বিরোধী ১৫ নেতাকে একযোগে চিঠি মমতা ব্যানার্জির

    বিজেপি স্বৈরাচারী শাসন চালাচ্ছেন: বিজেপি বিরোধী ১৫ নেতাকে একযোগে চিঠি মমতা ব্যানার্জির

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে অবিজেপি নেতাদের একজোট করার চেষ্টা দীর্ঘদিন ধরেই করে আসছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত লোকসভা নির্বাচনের আগে ব্রিগেডে দেশের প্রায় সমস্ত অবিজেপি নেতাদের একত্রিত করেছিলেন। তাৎপর্যপূর্ণভাবে রাজ্যের বিধানসভা ভোটপ্রক্রিয়া চলাকালীন আরও একবার সেই প্রক্রিয়া শুরু করলেন তৃণমূলনেত্রী। চিঠি লিখলেন প্রায় ১৫ জন অবিজেপি নেতাদের কাছে। একযোগে বিজেপি বিরোধী সব নেতাকে চিঠি লিখে মমতা দাবি করলেন, কেন্দ্রের বিজেপি সরকার স্বৈরাচারী শাসন চালাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় আঘাত হানছে। অবিজেপি রাজ্যে রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি করা হচ্ছে।

    নন্দীগ্রামের ভোটের ঠিক আগের দিন মমতার লেখা এই তিন পাতার চিঠি গিয়েছে কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী , এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পওয়ার, ডিএমকে সুপ্রিমো এমকে স্ট্যালিন, সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব, আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে, ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক, অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি, ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ফারুখ আবদুল্লাহ, পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি এবং সিপিআইএম লিবারেশনের নেতা দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের কাছে।

    রাজ্যের ভোট প্রক্রিয়া চলাকালীনই কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া এবং বাম নেতা দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের কাছে মমতার এই চিঠি যাওয়াটা আলাদাভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

    তবে মমতা ব্যানার্জির এই চিঠি দেওয়া প্রসঙ্গে তার কঠোর সমালোকরা প্রশ্ন তুলেছেন যে মমতা ব্যানার্জি নিজের রাজ্যে ক্ষমতা বাঁচাতে যখন অবিজেপি নেতাদের চিঠি লিখছেন ঠিক সেই সময় অসমের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি বিরোধী মহাজোটের ভোটে ভাগ বসাতে ১৬ টি সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী দিয়ে রেখেছেন। এমনকি সেখানে নির্বাচনী প্রচারে পাঠিয়েছেন সাংসদ শতাব্দী রায়কে। আসামে যেখানে বিজেপির জয় পরাজয়ে নির্ভর করছে দেশের NRC , CAA এর ভবিষ্যৎ তখন সেখানে বিজেপি বিরোধী ভোটে ভাগ বসিয়ে মমতার দল বিজেপিকেই সুবিধা করে দিচ্ছে।