নির্বাচন কমিশনের সোস্যাল মিডিয়া দেখভালের দায়িত্বে বিজেপি আইটি সেলের কর্মী: চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মহারাষ্ট্রে

    নির্বাচন কমিশনের সোস্যাল মিডিয়া দেখভালের দায়িত্বে বিজেপি আইটি সেলের কর্মী: চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মহারাষ্ট্রে

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনের আগে নির্বাচন কমিশন তাদের সোশ্যাল মিডিয়া অ‍্যাকাউন্ট পরিচালনা করার জন্য বিজেপির আইটি সেলকে নিয়োগ করেছিল। প্রমাণ সহ চাঞ্চল্যকর এই দাবি করলেন আরটিআই অ‍্যাক্টভিস্ট সাকেত গোখলে। গোখলের এই অভিযোগের ভিত্তিতে মহারাষ্ট্র নির্বাচন কমিশনের কাছ থেকে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে ইলেকশন কমিশন অব ইন্ডিয়া (ইসিআই)।

    নিজের ট‍্যুইটারে সাকেত গোখলে জানান, ২০১৯ সালে মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনের আগে সোশ্যাল মিডিয়া অ‍্যাকাউন্টগুলি পরিচালনা করার জন্য যে সংস্থাকে নিয়োগ করেছিল নির্বাচন কমিশন, তা আসলে বিজেপির নিয়োগপ্রাপ্ত একটি সংস্থা, যার মালিক রাজ‍্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা। এক্ষেত্রে মহারাষ্ট্রের মুখ‍্য নির্বাচন কমিশনার কর্তৃক সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা নির্বাচন সংক্রান্ত বিজ্ঞাপনকে প্রমাণ হিসেবে ব‍্যবহার করেছেন গোখলে।

    তাঁর অভিযোগ, মহারাষ্ট্র নির্বাচন কমিশনারের সোশ্যাল মিডিয়া বিজ্ঞাপন পোস্টে যে ঠিকানার উল্লেখ রয়েছে – ২০২ প্রেসম‍্যান হাউস, ভিলে পার্ক, মুম্বাই, এই ঠিকানাটি সোশ্যাল সেন্ট্রাল নামের একটি ডিজিটাল এজেন্সি ব‍্যবহার করে। এই এজেন্সির মালিক দেভাং দাভে, যিনি বিজেপির যুব শাখা ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার আইটি এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় জাতীয় আহ্বায়ক।

    তাঁর আরও প্রশ্ন, “মহারাষ্ট্রের মুখ‍্য নির্বাচন আধিকারিকের সোশ্যাল মিডিয়া কেন বিজেপির আইটি সেলের সদস্য দ্বারা পরিচালিত হবে?”

    সোশ্যাল সেন্ট্রালের ওয়েবসাইট থেকে ক্লায়েন্টদের নামও ট‍্যুইটারও শেয়ার করেছেন সাকেত গোখলে, যার মধ্যে‌ বেশ কয়েকটি সরকারি সংস্থাও রয়েছে।

    এই অভিযোগে সঠিক তদন্তের দাবি তুলেছে কংগ্রেস। কংগ্রেস মুখপাত্র শচীন সাওয়ান্ত জানিয়েছেন, “নির্বাচন কমিশনের মতো স্বাধীন সংস্থার বিরুদ্ধে ওঠা এই গুরুতর অভিযোগের সঠিক তদন্তের দাবি করছি আমরা। বিজেপির যুব শাখার জাতীয়স্তরের এক নেতার কোম্পানি মহারাষ্ট্র নির্বাচন কমিশনারের সোশ্যাল মিডিয়া অ‍্যাকাউন্ট নিয়ন্ত্রণ করছে। তাহলে তথ‍্যের গোপনীয়তা কী থাকবে? কেন ওই সংস্থার ব‍্যাকগ্রাউন্ড চেক করা হয়নি?”