ক্ষমতায় ফিরছে মমতা! সামনে এলো সিএনএক্সের নতুন সমীক্ষা

    সামনে এলো সিএনএক্সের নতুন সমীক্ষা: গেরুয়া না মমতা, কাদের দখলে রাজ্যের শাসন ক্ষমতা!

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশিত হয়ে গিয়েছে। জোর কদমে প্রচার শুরু করে দিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। বাংলার মসনদ দখলের লড়াইটা এবার মূলত ত্রিমুখী। একদিকে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। প্রধান চ্যালেঞ্জার হিসাবে লড়াইয়ে নামছে বিজেপি। লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত সংযুক্ত মোর্চাও। যে জোটে রয়েছে বামফ্রন্ট ও তাদের সহযোগী দলগুলি, কংগ্রেস ও আব্বাস সিদ্দিকি প্রতিষ্ঠিত নতুন দল ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট বা ISF। প্রত্যেক আসনেই হতে পারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই।

    বাংলার আগামী বিধানসভা নির্বাচন কোন দল কটি আসন পাবে? এ ব্যাপারে জনমত সমীক্ষা চালিয়েছিল সিএনএক্স। ফোনে নয়, সরাসরি ভোটারদের বাড়িতে গিয়ে কথা বলেছিলেন সমীক্ষকরা। দ্বিতীয় দফায় সিএনএক্স-এবিপি আনন্দের সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস পেতে পারে ১৫৪ থেকে ১৬৪টি আসন। রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল হিসাবে উঠে এসেছে বিজেপি। গত লোকসভা ভোটে রাজ্যে ১৮টি আসন জিতেছিল গেরুয়া শিবির। সিএনএক্স-এবিপি আনন্দের সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, আসন্ন বিধানসভা ভোটে ১০২ থেকে ১১২টি আসন পেতে পারে বিজেপি। বাম, কংগ্রেস ও ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট (ISF) জোট পেতে পারে ২২ থেকে ৩০টি আসন। অন্যান্যরা পেতে পারে ১ তেকে ৩টি আসন।

    রাজ্যে মোট আসন ২৯৪। সরকার গড়তে প্রয়োজন – ১৪৮। সেই কারণে ১৪৮-কে ম্যাজিক ফিগার বলা হয়। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেস সেই ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করতে পারে। ফলে ফের মসনদে থাকার দৌড়ে এগিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলই।