রমজানে রোজা অবস্থায় করোনার টিকা নেওয়া যাবে: জানিয়ে দিলেন ইসলামী স্কলাররা

রমজানে রোজা অবস্থায় করোনার টিকা নেওয়া যাবে: জানিয়ে দিলেন ইসলামী স্কলাররা

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ইসলামী বর্ষপঞ্জির রমজান মাসে বিশ্বব্যাপী মুসলিমসম্প্রদায় রোজা পালন করে থাকে। এই রীতির প্রচলিত নিয়ম হল ভোর থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত উপবাস করা। সূর্যাস্তের পর ইফতার খেয়ে রোজা ভঙ্গ করা হয়। ইসলামী রীতি অনুসারে যারা রোজা রাখেন তাদের সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত যে কোনও কিছু খাওয়া নিষিদ্ধ। এমন অবস্থায় কোভিড-১৯ বা করোনার টিকা গ্রহণ কি স্বাস্থ্যসম্মত! ব্রিটেনের জাতীয় স্বাস্থ্য পরিষেবা জোর দিয়ে বলেছেন যে রমজানে রোজা রাখার পরেও কোভিডের ভ্যাকসিন দেওয়া যেতে পারে এবং এর জন্য রোজা ছাড়ার প্রয়োজন হবে না।

 

রোজার শর্ত অনুসারে এই সময় দেহের মধ্যে কোনও কিছু প্রবেশ করা নিষেধ। তবে লিডস শহরের ইমাম ব্রিটেনের মসজিদ ও স্কলারদের জাতীয় উপদেষ্টা বোর্ডের প্রধান কারি ওয়াসীম, এই বিষয়ে বলেছেন যে, “কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন রক্ত ​​প্রবাহের বদলে শরীরের অঙ্গগুলিতে প্রয়োগ করা হয় এবং ডায়েটরি না হওয়ায় রোজা ভাঙার ঝুঁকি থাকে না।”

তিনি বিবিসি সংবাদমাধ্যম-কে আরও জানিয়েছেন যে, ‘প্রথমত করোনা টিকা নিরাপদ তা প্রমাণিত, দ্বিতীয়ত এই টিকা না নেওয়ার ফলে অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এমনকী রোজা চলাকালীন টিকা না নেওয়ার কারণে অসুস্থতার জন্য হাসপাতালে ভর্তীও হতে পারে, ফলে রোজ ভেঙ্গেই তখন হাসপাতালে ভর্তী হতে হবে। তাই রোজার অবস্থায় ভ্যাকসিন প্রয়োগ করার ফলে রোজা ভঙ্গ হয়ে যাবে এমনটা না ভাবাই শ্রেয়।’ ব্রিটেনের মসজিদগুলিতেও মুসলমান সম্প্রদায়ের মধ্যে ভ্যাকসিনের নিষেধাজ্ঞাগুলি অপসারণের জন্য টিকা কেন্দ্র হিসাবে ব্যবহৃত করা হচ্ছে। এমনকী সংক্রমণ থেকে রক্ষা করার জন্য এই উৎসবের সময়ে দুটি মাস্ক ব্যবহারের কথাও বলা হয়েছে।

বাংলাদেশের ইসলামিক ফাউন্ডেশনও গত ১৪ই মার্চ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভা কক্ষে দেশের জ্যেষ্ঠ আলেমদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ের পর জানিয়েছে, রোজা রেখে করোনাভাইরাসের টিকা নিতে কোন সমস্যা নেই।

”আলোচনায় উপস্থিত আলেম সমাজ একমত পোষণ করেছেন যে, যেহেতু করোনাভাইরাসের টিকা মাংসপেশিতে গ্রহণ করা হয় এবং তা সরাসরি খাদ্যনালী বা পাকস্থলীতে প্রবেশ করে না, সেহেতু রমজান মাসে রোজাদার ব্যক্তি দিনের বেলায় শরীরে টিকা গ্রহণ করলে রোজা ভঙ্গ হবে না,” ইসলামিক ফাউন্ডেশনের একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।