প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও যোগী আদিত্যনাথের সমালোচনা: আসাদউদ্দিন ওয়েসির বিরুদ্ধে অবমাননার অভিযোগ

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও যোগী আদিত্যনাথের সমালোচনা: আসাদউদ্দিন ওয়েসির বিরুদ্ধে অবমাননার অভিযোগ

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ২২ শে উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচন। সেজন্যই তিনদিনের প্রচারে রাজ্যে এসেছিলেন ওয়েইসি। তাঁর দল নির্বাচনে বেশ কিছু আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।বৃহস্পতিবার কাটরা চন্দনায় এক জনসভায় দলের হয়ে প্রচার করার সময়ই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সমালোচনা করে মন্তব্যের অভিযোগে এফআইআর দায়ের হল এআইএমআইএম সুপ্রিমো আসাদুদ্দিন ওয়েইসির বিরুদ্ধে। কেবল এই অভিযোগই নয়, তাঁর বিরুদ্ধে বিভেদ মূলক বক্তব্য দেওয়া ও কোভিড বিধি ভাঙার অভিযোগও আনা হয়েছে।

 

বারাবাঁকির পুলিশ সুপারিটেন্ডেন্ট যমুনা প্রসাদের কথায়, ”ওঁর ভাষণে সাম্প্রদায়িক উসকানি ছিল ও একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের ভাবাবেগে আঘাত দিতে চেয়েছেন। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করেছেন ওয়েইসি।”

 

ওয়েইসির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁর সভায় সামাজিক দূরত্বের কোনও বালাই ছিল না। তিনি নিজে এবং অন্যদেরও সেভাবে মাস্ক পরতে দেখা যায়নি। এদিকে এদিনের সভায় ওয়েইসি ‘রণং দেহি’ মূর্তি ধারণ করতে দেখা যায়। তিনি অভিযোগ করেন, নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই দেশকে ‘হিন্দু রাষ্ট্র’ হিসেবে গড়ে তুলতে চাইছেন। কেন্দ্রের তিন তালাক বিরোধী আইন প্রসঙ্গে ওয়েইসির খোঁচা, ”বিজেপি নেতারা মুসলিম মহিলাদের বিরুদ্ধে হওয়া অবিচারের কথা বলেছেন তিন তালাক প্রসঙ্গে। কিন্তু দেশের হিন্দু মহিলাদের দুর্দশা সম্পর্কে তাঁরা পুরোপুরি নীরব।”

 

 

এরপরই তিনি বলেন, ”আমার বউদি (প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী) একা গুজরাটে থাকেন। তাঁর বিষয়ে কোনও উত্তর নেই কারও কাছে।” ওয়েইসির এই ধরনের মন্তব্যের বিরুদ্ধেই অবমাননামূলক মন্তব্যের অভিযোগ আনা হয়েছে।