ঈদের নামাজ: একনজরে নিয়মাবলী

ঈদের নামাজ: একনজরে নিয়মাবলী

মাওঃ মোঃ আব্দুস সামাদ, ফুরফুরা শরীফ

ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ।  বছরে দুই ঈদে দুই ঈদের জামাত পড়তে হয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের।  অনেকেই হয়তো জানেন না ঈদের নামাজ কীভাবে আদায় করতে হয়।  ঈদের নামাজ অন্যান্য নামাজের মতোই আদায় করতে হয়।

ঈদের নামাজে রুক, সিজদা, তাশাহুদ সবই আছে।  শুধু মাত্র অতিরিক্ত ছয় তাকবির দিতে হয়।  আপনি কীভাবে নামাজ আদায় করবেন তা একনজর দেখে নিন।

নামাজের নিয়ম :

আরবী নিয়্যত :-
নাওয়াইতু আন উছাল্লিয়া লিল্লাহি তা আলা রাকয়াতাই ছালাতি ঈদিল আযহা মাআ ছিত্তাতি তাকবীরাতি ওয়াজিবুল্লাহি তা আলা ইক্বতাদাইতু বিহাজাল ইমামি মুতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।’

বাংলায় নিয়্যত:-
আমি ঈদুল আজহার দুই রাকাআত ওয়াজিব নামাজ ছয় তাকবিরের সহিত এই ইমামের পেছনে কিবলামুখী হয়ে আল্লাহর ওয়াস্তে আদায় করছি, এ নিয়ত মনে মনে স্থির করা বা মুখে বলা।  এরপর তাকবিরে তাহরিমা ‘আল্লাহু আকবার’ বলে হাত বাঁধা এবং ছানা পাঠ করা।

ছানা পাঠ করার পর ইমাম অতিরিক্ত ৩টি তাকবির দেবেন।  এই তিন তাকবিরের সময় ইমাম ও মুক্তাদি উভয়হাত কান পর্যন্ত উঠাবেন এবং প্রথম ও দ্বিতীয় তাকবিরে হাত কান পর্যন্ত উঠানোর পর নিচে ছেড়ে দেবেন।  তৃতীয় তাকবিরের সময় কাঁধ পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত ছেড়ে না দিয়ে হাত বাঁধবেন। এরপর ইমাম সূরা ফাতিহা ও সুরা মিলাবে এবং কিরাআত শেষ করে যথারীতি রুকু ও সিজদা করার মাধ্যমে প্রথম রাকাআত শেষ করে পুনরায় দাঁড়িয়ে দ্বিতীয় রাকাআতের কিরাত শেষ করবেন।

এরপর রুকুতে যাবার আগে আবার অতিরিক্ত ৩ তাকবির দেবেন এভাবে যে, কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে তাকবির বলে হাত ছেড়ে দেবেন।  এরপর চতুর্থ তাকবির তথা রুকুর তাকবির বলে সোজা রুকুতে চলে যাবেন।  এরপর অবশিষ্ট নামাজ যথারীতি আদায় করে ছালাম ফিরাবেন।  এরপর ইমাম সাহেব মিম্বরে ওঠে দুটি খুৎবাহ পাঠ করবেন।

দোয়া :-
ঈদের গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত ও বরকত লাভের জন্য আল্লাহ তা’য়ালার কাছে প্রার্থনা করতে হবে।  ইমাম সাহেব সবার জন্য পরম করুণাময় আল্লাহ তা’য়ালার কাছে দোয়া করবেন।

আমরা যেন যথানিয়মে ঈদের নামাজ আদায় করতে পারি আল্লাহ তা’য়ালা আমাদের সেই তাওফিক দান করুন।
আমিন।