২০ বছর দখলের পরিসমাপ্তি! আফগানিস্তান থেকে সম্পূর্ণ সেনা প্রত্যাহার আমেরিকার

Soldiers attached to the 101st Resolute Support Sustainment Brigade, Iowa National Guard and 10th Mountain, 2-14 Infantry Battalion, load onto a Chinook helicopter to head out on a mission in Afghanistan, January 15, 2019. 1st Lt. Verniccia Ford/U.S. Army/Handout via REUTERS ATTENTION EDITORS - THIS IMAGE WAS PROVIDED BY A THIRD PARTY. - RC110D3B25B0

২০ বছর দখলের সমাপ্তি! আফগানিস্তান থেকে সম্পূর্ণ সেনা প্রত্যাহার আমেরিকার

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: তালিবানরা শেষমেষ আফগানভূমি দখলের পর ২০ বছরের যুদ্ধের সমাপ্তি। অবশেষে দেশে ফিরল মার্কিন সেনা। আফগানিস্তান থেকে সম্পূর্ণ সেনা প্রত্যাহার করল আমেরিকা। পূর্ব ঘোষণা মতোই ৩১ অগাস্টের সময়সীমা শেষ হওয়ার আগেই আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নিল আমেরিকা৷ওয়াশিংটন এবং ন্যাটোর দেশগুলিকে আগাম পরিকল্পনা ছাড়াই আফগান প্রদেশ থেকে বেরিয়ে যেতে বাধ্য করা হয়েছে।।

 

পশ্চিমী শক্তিকে সাহায্য করা শয়ে শয়ে আফগানীকে তালিবানি ঘেরাটোপের মধ্যেই রেখে গেল আমেরিকা। এদিকে, মার্কিন সেনা দেশ ছাড়ার পরই রীতিমতো উৎসবের মেজাজে কাবুল। সেনার শেষ দল আফগানিস্তান ছাড়ার পর আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘‘২০ বছর ধরে আফগানিস্তানে আমাদের সেনা মোতায়েন ছিল।

 

এদিকে আফগানিস্তান ও মধ্য এশিয়া নিয়ে ভারতের বিদেশ সচিব হর্ষ ভি শৃঙলার সভাপতিত্বে রাষ্ট্র পুঞ্জ এর নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক হয় । বৈঠক এ অশান্ত প্যালেস্টাইন নিয়েও আলোচনা হয় । ইংরেজি দৈনিক ডন জানিয়েছে,- ফ্রান্স ও ব্রিটেন এ বিষয়ে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করতে পারে, যাতে কাবুলে একটি নিরাপদ জোন প্রতিষ্ঠার কথা বলা হবে। যেসব ব্যক্তি আফগানিস্তান থেকে চলে যেতে চায়, তাদের কাবুল বিমানবন্দরে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য এবং দেশটিতে মানবিক ত্রাণ অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে ফ্রান্স ও ব্রিটেন এই প্রস্তাব উত্থাপনের চিন্তা করছে।

আমরা সব সেনা প্রত্যাহার করলাম। তালিবানের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়া আফগানিস্তান থেকে উদ্ধারকাজ চালানোর জন্য সেনা জওয়ানদের প্রশংসাও করেছেন বাইডেন। যাঁরা আফগানিস্তান ছাড়তে চান, তাঁদের নিরাপদে যেতে দেওয়ার যে প্রতিশ্রুতি তালিবান দিয়েছিল, সে কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন বাইডেন। মঙ্গলবার বিকালে আমেরিকাবাসীর উদ্দেশে এ নিয়ে তিনি ভাষণও দিতে পারেন।