১৩০ কোটি ভারতীয় কখনই হিন্দু নয়, মোহন ভাগবতের মন্তব্যের বিরোধিতা মোদীর মন্ত্রী রামদাসের

১৩০ কোটি ভারতীয় কখনই হিন্দু নয়, মোহন ভাগবতের মন্তব্যের বিরোধিতা মোদীর মন্ত্রী রামদাসের

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ১৩০ কোটি ভারতীয়ই নাকি হিন্দু। বুধবার এমনই এক মন্তব্য করে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ প্রধান মোহন ভাগবত। কিন্তু আশ্চর্যভাবে সংঘ প্রধানের এই মন্তব্যের সঙ্গে সহমত হলেন না কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সদস্য রামদাস আঠায়লে। এর বিরুদ্ধ মন্তব্য করেছেন তিনি।

এএনআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সামাজিক ন্যায়মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘এটা বলা ঠিক নয় যে সকল ভারতীয়রা হিন্দু। একটা সময় ছিল যখন দেশের প্রত্যেকে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বি ছিল। মোহন ভাগবত যদি এটা বলতে চেয়ে থাকেন যে সকলেই ভারতীয় তাহলে আলাদা ব্যাপার। আমাদের দেশের নাগরিকরা কিন্তু অনেক ধর্ম মিলিয়ে। এখানে বুদ্ধিস্ট, শিখ, হিন্দু, মুসলিম, খৃস্টান, পারসি, জৈন, লিঙ্গায়ত সমস্ত সম্প্রদায়ের মানুষ থাকেন। যে কোনও একটা ধর্মের নাম নেওয়া ঠিক হবে না।’ এমনটাই বলেন রিপাবলিকান পার্টি অব ইন্ডিয়ার প্রধান। এনডিএ সরকারের জোটসঙ্গী তাঁর দল।

উল্লেখ্য, বুধবার হায়দরাবাদে ‘বিজয় সংকল্প সভা’য় সংঘের ২০,০০০ কর্মীর সামনে বক্তব্য রাখার সময় ভাগবত বলেন, সংঘ পরিবার ১৩০ কোটি ভারতীয়কে তাদের ধর্ম ও সংস্কৃতির ঊর্ধ্বে গিয়ে হিন্দু হিসেবেই দেখে। ‘যে ভারতমাতার সন্তান, সে যে ভাষাই বলুক, যেই রাজ্যের হোক, কোনও ঈশ্বরের ওপর বিশ্বাস রাখুক বা না রাখুক, সে হিন্দু। এভাবেই সংঘের জন্য ১৩০ কোটি ভারতীয়ই হিন্দু।’ বলেন মোহন ভাগবত।

এই সভায় ব্রিটিশ শাসন এবং তাদের ভাগাভাগির রাজনীতির সমালোচনা করতে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রসঙ্গ টেনে আনেন তিনি। রবিঠাকুর হিন্দু মুসলিমদের সম্প্রীতির বাঁধনে আবদ্ধ করতে যেভাবে রাখিবন্ধন প্রথা চালু করেছিলেন, সেই কথাও বলেন ভাগবত।