ওভার-থ্রো’র সিদ্ধান্তে ধর্মসেনার পাশে আইসিসি

ওভার-থ্রো’র সিদ্ধান্তে ধর্মসেনার পাশে আইসিসি

নিউজ ডেস্ক,বঙ্গ রিপোর্ট: আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি ধর্মসেনার সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে এবার যুক্তি দিয়েছেন। পরিস্থিতি অনুযায়ী টিভি আম্পায়রের সাহায্য নেওয়ার কোনও উপায় ছিল না। তাই অন-ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে সঠিক পদ্ধতিই অনুসরন করেছে দুই অন-ফিল্ড আম্পায়ার, বললেন আইসিসি’র জেনারেল ম্যানেজার জিওফ অ্যালার্ডাইস।

ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের ফাইনাল ম্যাচের শেষ ওভারে গাপটিলের ছুঁড়ে মারা বল ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি অতিক্রম করে। তাতে মোট ছয় রানের সিদ্ধান্ত দেন ধর্মসেনা।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপে মহাকাব্যিক ফাইনালে ওভার-থ্রো’র রান নিয়ে বির্তক থামছে না। তবে ওভার-থ্রো’র সিদ্ধান্তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি এবার আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার পাশে দাড়ালো। রোমাঞ্চকর ফাইনাল ম্যাচে শেষ ওভারে মার্টিন গাপটিলের ওভার-থ্রোতে লঙ্কান আম্পায়ার ধর্মসেনা ৬ রানের সিদ্ধান্ত দেন। তাতে সমালোচনার ঝড় উঠে ক্রিকেটবিশ্বে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি ধর্মসেনার সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে এবার যুক্তি দিয়েছেন। পরিস্থিতি অনুযায়ী টিভি আম্পায়রের সাহায্য নেওয়ার কোনও উপায় ছিল না। তাই অন-ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে সঠিক পদ্ধতিই অনুসরন করেছে দুই অন-ফিল্ড আম্পায়ার, বললেন আইসিসি’র জেনারেল ম্যানেজার জিওফ অ্যালার্ডাইস।ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের ফাইনাল ম্যাচের শেষ ওভারে গাপটিলের ছুঁড়ে মারা বল ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি অতিক্রম করে। তাতে মোট ছয় রানের সিদ্ধান্ত দেন ধর্মসেনা।আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে অ্যালার্ডাইস বলেন, ‘মাঠে দাঁড়িয়ে ওই মুহূর্তেই দুই অন-ফিল্ড আম্পায়ারকে তাদের সিদ্ধান্ত নিতে হতো। তারা দুজন আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই আমার মতে তারা নিশ্চিতভাবেই সঠিক পদ্ধতিই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। থ্রোয়ের সময় ক্রিজে উপস্থিত দুই ব্যাটসম্যানের একে অপরকে ক্রস করার নিয়মটি সম্পর্কেও তারা অবগত ছিলেন। কিন্তু থার্ড আম্পায়ারের সাহায্য নেওয়ার মত পরিস্থিতি তাদের কাছে ছিল না। এমনকি ম্যাচ রেফারি অন-ফিল্ড আম্পায়ারদের সিদ্ধান্তে কোনো হস্তক্ষেপ করতে পারে না।’