তরুণরা বেরোজগারি নিয়ে প্রশ্ন করলে, বুলেট দিয়ে জবাব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী: বেনজির আক্রমণ রাহুল গান্ধীর

তরুণদের বেরোজগারি নিয়ে প্রশ্ন করলে, বুলেট দিয়ে জবাব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী: বেনজির আক্রমণ রাহুল গান্ধীর

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি দেশজুড়ে সফর করার কর্মসূচি নিয়েছেন। মঙ্গলবার এর সূচনা হয় রাজস্থান সফরের মধ্য দিয়ে। জয়পুরে তিনি একটি জনসভায় বক্তব্য দেন। সভা থেকে মোদিকে তীব্রভাবে আক্রমণ করেন তিনি। বলেন, দেশের শান্তি ও সম্প্রীতির ছবিতে কলঙ্ক লেপন করছেন মোদি। বিশ্বের কাছে ভারতের মর্যাদাকে হীন করেছে মোদির সিএএ-এনআরসি পদক্ষেপ বলে রাহুল দাবি করেন। ‘মোদি ২ কোটি নতুন চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তিনি ক্ষমতায় আসার পর ১ কোটি মানুষ কাজ হারিয়েছে। দেশজুড়ে বুলেটের মাধ্যমে পড়ুয়াদের কণ্ঠরোধ করার চেষ্টা করছে বিজেপি সরকার। এটা সফল হতে দেওয়া যাবে না,’ সোচ্চার হন রাহুল।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন, এনআরসির বিরুদ্ধে দেশজুড়ে প্রতিবাদে শামিল হয়েছে সাধারণ নাগরিক থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। মোদি-শাহরা নানা ভাবে রাষ্ট্রীয় শক্তিকে কাজে লাগিয়ে একে দমাতে চাইছে। উত্তরপ্রদেশে যোগী-সরকার আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে গুলি ছুড়েছে– অবৈধ অভিযোগ তুলে জেলে ঢুকিয়েছে। ছাত্ররা না বুঝেই আন্দোলন করছে বলে অভিযোগ তুলেছেন মোদি। এমনকি পোশাক দেখেই আন্দোলনকারীদের চেনা যায় বলেও ধর্ম-বিদ্বেষী মন্তব্য করেছেন মোদি। মঙ্গলবার জয়পুরে যুব আক্রোশর্ যালিতে এসব প্রসঙ্গ তুলেই প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি প্রধানমন্ত্রী মোদি ও বিজেপিকে একহাত নেন। দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির জন্য তিনি মোদিকে দায়ী করে বলেন– দেশের উত্তপ্ত পরিস্থিতির কারণে বিদেশি পর্যটকরা এ দেশকে এড়িয়ে চলছেন। ঠিক একই কারণে বিনিয়োগকারীরাও এ দেশে বিনিয়োগ করতে সাহস পাচ্ছে না। এটা ভারতের জন্য মারাত্মক ক্ষতি ডেকে আনছে। আর তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দেশের বেকার যুবকদের ২ কোটি নতুন চাকরি হবে। তা তো হলই না। উলটে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর ১ কোটি মানুষ কাজ হারিয়ে বেকার হয়েছে। বিশ্বে ভারতের মর্যাদা হ্রাস হয়েছে। ভারত এখন আন্তর্জাতিক ‘রেপ ক্যাপিটাল’ বলে এ দিন তিনি ফের মন্তব্য করেন।

রাহুল এ দিন জনসভা থেকে আরও বলেন, এখন যদি আট বছর বয়সী একটি বাচ্চাকেও জিজ্ঞাসা করা হয়, নোটবন্দিতে ক্ষতি না উপকার হয়েছে? সে বলবে, ক্ষতি হয়েছে। আগে আমরা চিনের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতাম। অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে– চিন আমাদের অনেক পিছনে ফেলে এগিয়ে গেছে। পুরো বিশ্ব জানে– চিনের সঙ্গে কেউ যদি প্রতিযোগিতা করতে পারে– তবে তা হল ভারতের তরুণ জনতা।

এদিনেরর্ যালিতে মূলত তরুণদের উপস্থিতিই বেশি ছিল। দেশে ক্রমবর্ধমান বেকারত্ব নিয়ে তাই বারবার সরব হন রাহুল গান্ধি। তিনি অভিযোগ করেন, তরুণরা যখন বেরোজগারি নিয়ে মোদিকে প্রশ্ন করে, তখন বুলেট দিয়ে তার জবাব দেওয়া হয়। যুবকদের কণ্ঠরোধ করা হয়। ভারতের সবচেয়ে সেরা সম্পদ ও শক্তি হল তরুণরা। বিজেপি সরকার সেই সম্পদ নষ্ট ও অপচয় করছে।