মোদি সরকারের  আমলে আর্থিক মন্দায় কার্যত ধুঁকছে ডাক: এবার বেসরকারি করণের পথে ভারতীয় ডাক বিভাগ

মোদি সরকারের  আমলে আর্থিক মন্দায় কার্যত ধুঁকছে ডাক: এবার বেসরকারি করণের পথে ভারতীয় ডাক বিভাগ

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: আর্থিক মন্দায় কার্যত ধুঁকছে ভারতীয় ডাক বিভাগ৷ রোজগার থেকে বেতন, পেনশন ও অফিস চালানোর খরচের বোঝা দিনে দিনে বেড়ে চলছে৷ গত আর্থিক বছরে ভারতীয় ডাক বিভাগের আয়ের থেকে ব্যয় ১৫ হাজার কোটি টাকা বেশি ছিল৷ ফলে, এই পরিস্থিতিতে থেকে মুক্তি পেতে বেসরকারি সংস্থার দিকে ঝুঁকতে চলেছে ডাক বিভাগ৷ ঘুরে দাঁড়তে বিকল্প পথে আয় বাড়ানোর সন্ধান শুরু করেছে ডাক বিভাগ৷

বেসরকারি সংস্থার হাত ধরে কীভাবে আয় বৃদ্ধি করা যায়, তা নিয়ে শুরু হয়েছে চর্চা৷ কীভাবে বিকল্প আয় খুঁজছে ডাক বিভাগ? জানা গিয়েছে, পিপিপি মডেলে এগতে চাইছে ডাক কর্তৃপক্ষ৷ কেননা, দেশে ১.৫৫ লক্ষ পোস্ট অফিস আছে৷ ১ লক্ষ ৩০ হাজার পোস্ট অফিস রয়েছে গ্রামে৷ সেখানে সেই অফিসগুলি অন্যান্য কাজের পাশাপাশি ই-কমার্স কিংবা ই-গভর্ন্যান্স পরিষেবা জন্য পরিকাঠামো ভাগাভাগি করা হতে পারে৷ পোস্ট অফিসের নিজস্ব পরিকাঠামো বেসরকারি সংস্থাগুলি নিজেদের কাজে ব্যবহার করতে পারে৷ এমনকি কর্মীদের কাজে লাগানো যেতে পারে৷

কেননা, তিন লক্ষের বেশি গ্রামীণ ডাকসেবক ও গ্রুপ-সি পদে প্রায় ১ লক্ষ ৩০ হাজার কর্মী আছে ডাক বিভাগে৷ এছাড়া দপ্তরের হাতে আছে নিজস্ব ৪ লক্ষ ৮৫ হাজার লেটার বক্স রয়েছে৷ যা ওই সংস্থাগুলি নিজেদের মতো করে কাজে লাগাতে পারে বেসরকারি সংস্থা৷ কীভাবে সেই কাজ হবে, পরিকাঠামো ব্যবহারে কত টাকা ধার্য করা হবে, তার দিশা খুঁজছে ডাক বিভাগ৷ তবে, এভাবে সরকারি পরিকাঠামো বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দিলে সরকারি গোপনিয়তা ও গ্রাহক সুরক্ষা নিশ্চিত থাকবে তো? উঠছে প্রশ্ন৷