গো-মাংস খাওয়ায় মুসলিম যুবককে মার উগ্র হিন্দু সংগঠনের সদস্যদের

গো-মাংস খাওয়ায় মুসলিম যুবককে মার উগ্র হিন্দু সংগঠনের সদস্যদের

বঙ্গ রিপোর্ট ডেস্কঃ মানবতার একেবারে কি শেষ লগ্নে! আবারও উগ্রবাদী হিন্দুত্ববাদের করাল গ্রাসে আক্রান্ত সংখ্যালঘু মুসলিম যুবক। শখের বশে একটু আয়েষ করে বিফ স্যুপ খেয়ে ছবি দিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ ব্যাস শুরু হয়ে গেল মবলিঞ্চিং! তামিলনাডুর নাগাপত্তিনমের গোরুর মাংস খাওয়ার জেরে ওই মুসলিম যুবকের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল হিন্দু মাক্কাল কাটচি দলের চার সদস্যের বিরুদ্ধে৷

সুত্রে খবর, গত ৯ই জুলাই তামিলনাড়ুর একটি রেস্তোরাঁয় পছন্দের বিফ খেয়ে মোবাইলে ফ্রেমবন্দী করেছিলেন মহম্মদ ফৈজান। ফ্রেমবন্দী করা ফটো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করতেই পোস্টটি নজরে আসে হিন্দু মাক্কাল কাটচি দলের এক সদস্যের৷ এরপর সোশ্যাল মিডিয়াতেই তীব্র ভাবে আক্রমণ করতে থাকে ফৈজানের উপর।

এরপরই রাতে হঠাৎ তাঁর বাড়িতে চড়াও হয় বেশ কয়েকজন যুবক৷ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ফৈজানকে ঘিরে বেধড়ক মারধর করে তারা৷ ধারাল অস্ত্র এবং লোহার রড দিয়ে তাঁর উপর হামলা চালানো হয় বলেও অভিযোগ৷ রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ির সামনে লুটিয়ে পড়েন ফৈজান৷ যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন তিনি৷ ঘটনাস্থল ছেড়ে চলে যাওয়ার আগে অবশ্য নিজে মুখে মারধরের কারণ স্পষ্ট করে আগন্তুকরা৷ গোমাংস খাওয়ার ‘অপরাধে’ হামলা বলেই জানিয়েছে ওই যুবকেরা৷ ধারাল অস্ত্র এবং লোহার রড দিয়ে মারে গুরুতর অসুস্থ মহম্মদ ফৈজান৷ হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তাঁর। এই অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷