আনিস খানের মৃত্যুর প্রতিবাদে বাম ছাত্র যুব বিক্ষোভে রণক্ষেত্র হাওড়া এসপি অফিস চত্বর

আনিস খানের মৃত্যুর প্রতিবাদে বাম ছাত্র যুব বিক্ষোভে রণক্ষেত্র হাওড়া এসপি অফিস চত্বর

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ছাত্র নেতা আনিস খানের হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে শনিবার বিকালে হাওড়া গ্রামীন এসপি অফিস অভিযান করে বাম ছাত্র যুব সংগঠন। এই অভিযান ঘিরে রনক্ষেত্র চেহারা নেয় হাওড়া জেলা এসপি অফিস চত্বর। বিক্ষোভ থেকে এসপি অফিস উদ্দেশ্য করে ইট ছোঁয়া হয় বলে অভিযোগ। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশের পক্ষ থেকে কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটানো হয় এবং লাঠিচার্জ করা হয়।

পুলিশ বাধা দিলে হাতাহাতি বাধে। পাঁচলা পানিয়াড়া এলাকার রাস্তাঘাটে ছড়িয়ে পড়ে বিক্ষোভের আঁচ। অভিযোগ, মিছিল থেকে ছোঁড়া ইটের আঘাতে জখম হন কয়েকজন পুলিশকর্মী। ভাঙে পুলিশের গাড়ির কাচও। এরপরই DYFI রাজ্য সম্পাদক মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়, সভাপতি সৃজন ভট্টাচার্য-সহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এদিকে, কলকাতার রাজপথেও আনিসের মৃত্যুর সুবিচার চেয়ে মিছিলে নামে সিপিএম। সামনের সারিতে পা মেলান বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্র।

এই মিটিং, মিছিলের কোনও যৌক্তিকতা নেই। আদালতের নির্দেশ মেনেই আনিস-কাণ্ডের তদন্ত হচ্ছে, বললেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ। আজকের বিক্ষোভের ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন। বাম নেতা বিমান বসু বললেন, ‘‘আসল লোককে গোপন করে অন্য লোককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তখতে থেকে অনেক কথাই বলা যায়।’’

 

আমাদের কেউ ইট ছোড়েনি, বললেন বাম যুব নেত্রী মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়। ঘটনাস্থলে এলেন দক্ষিণবঙ্গের এডিজি সিদ্ধিনাথ গুপ্ত। পুলিশকে লক্ষ্য করে বোতল, ইটবৃষ্টি।এসপি অফিসকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়ার অভিযোগ।আটক মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়-সহ একাধিক বাম নেতা। পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়ার অভিযোগ। পুলিশের গাড়িতে থাকা নথি পুড়ে যাওয়ার অভিযোগ।

বাম ছাত্র-যুবদের বিক্ষোভের জেরে জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ। একের পর এক পুলিশ গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট বৃষ্টি বিক্ষোভকারীদের। বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করল পুলিশ। ফাটানো হল কাঁদানে গ্যাসের সেল।