বাপ-ব্যাটার নির্দেশেই সেদিন নন্দীগ্রামে পুলিশ ঢুকে গুলি চালিয়েছিল: চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বললেন মমতা ব্যানার্জি

    বাপ-ব্যাটার নির্দেশেই সেদিন নন্দীগ্রামে পুলিশ ঢুকে গুলি চালিয়েছিল: চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বললেন মমতা ব্যানার্জি

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: নন্দীগ্রামের বিরুলিয়া বাজারের সভা থেকে গতকাল অর্থাৎ রবিবার নন্দীগ্রামে গুলি চলার ঘটনার জন্য অধিকারীদের দায়ী করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিযোগ করেছিলেন, ২০০৭ সালের ১৪ মার্চ ‘বাপ-ব্যাটার’ নির্দেশেই পুলিশ ঢুকেছিল নন্দীগ্রামে। তৃণমূল নেত্রীর এই দাবিতে স্বাভাবিকভাবেই তোলপাড় রাজ্যনীতি। পালটা দিলেন সাংসদ শিশির অধিকারী

    জখম হওয়ার ১৮ দিন পর গতকাল অর্থাৎ রবিবার নন্দীগ্রামের বিরুলিয়া বাজারে জনসভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখান থেকেই নাম না করে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন অধিকারীদের। নন্দীগ্রাম কাণ্ডের দায় চাপিয়ে দেন শুভেন্দু-শিশিরের উপর। বলেন, “বাপ-ব্যাটার অনুমতি ছাড়া নন্দীগ্রামে পুলিশ ঢুকতে পারত না। বুদ্ধদেববাবুর সঙ্গে ওদের যোগাযোগ ছিল। কী হবে সবটা জানতেন।”

    মুখ্যমন্ত্রীর এই অভিযোগে স্বাভাবিকভাবেই উঠে আসে একাধিক প্রশ্ন। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর এই অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যে বলেই দাবি করেছেন শিশির অধিকারী। তাঁর অভিযোগ, “উনি বুঝে গিয়েছেন হার নিশ্চিত। সেই কারণেই অধিকারীদের বদনাম করে ভোটে জেতার চেষ্টা করছেন।” ক্ষমতা থাকলে তৃণমূল নেত্রীকে মুখোমুখি বসার আহ্বান জানান তিনি। পাশাপাশি, মমতার প্রার্থীপদ বাতিলের দাবিতে কমিশনে যাবেন বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শিশির।