এখনও বিপদমুক্ত নয় মেদিনীপুর! ঝড়ের সাথে সাথে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে বাড়বে বৃষ্টি

    এখনও বিপদমুক্ত নয় মেদিনীপুর! ঝড়ের সাথে সাথে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে বাড়বে বৃষ্টি

     

     

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ঝড়ে লণ্ডভণ্ড দিঘা। উপড়ে পড়েছে অসংখ্য ঝাউগাছ। সমুদ্রের উত্তাল ঢেউ গার্ড ওয়ালের বড় বড় পাথর এনে ফেলেছে রাস্তায়। সমুদ্রের কাছে হোটলগুলি বিপর্যস্ত। ফাটল ধরেছে হোেটলের দেওয়ালে। থমথমে সৈকত শহর। আজও চলবে প্রকৃতির তাণ্ডব এমনই জানিয়েছে হাওয়া অফিস। পূর্ব মেদিনীপুরে একাধিক জায়গায় ৫০ থেকে ৭০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইতে পারে। পশ্চিমাঞ্চলের জেলা গুলিতে ইয়াসের দাপটে বাড়বে বৃষ্টি।

     

     

    ইয়াসের ছোঁয়ায় ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিল সমুদ্র। ঢেউ সাপেন ফনার মতো গ্রাস করছিল দোকান, বাজার, রাস্তা, ঝাউবন। ভয়ঙ্কর তার গর্জন। একসঙ্গে শত সহস্ত্র সাপ যেন ফঁস ফঁস করছে। রাস্তা না সমুদ্র ফারাক করা যাচ্ছিল না। ঢেউ নামতে তার ভয়ঙ্কর গ্রাস আরও স্পষ্ট হয়েছে। গার্ডওয়ালের বড় বড় পাথর ঢেউয়ের সঙ্গে আছড়ে পড়েছে রাস্তা। দিঘার রাস্তা জুড়ে এখন কেবল বড় বড় পাথর। ঝাউগাছ গুলো দুমড়ে-মুচড়ে পড়ে রয়েছে। ফাটল ধরেছে হোটেলের দেওয়াল, বারান্দায়।

     

     

    ইয়াস কেটে গেলেও দুর্যোগ কাটেনি। রাতে আরও ভয়ঙ্কর হবে সমুদ্র। ভরা কোটালের জোয়াবে বাড়বে জলস্তর। ফের গর্জন বাড়বে সাগরের। আগামিকালও তার রেশ থাকবে। পূর্বমেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়ায় আগামিকাল ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বইবে ঝড়।

     

     

    আগামিকালও কলকাতায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। সঙ্গে থাকবে দমকা হাওয়া। কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকায় এখনও জল জমে রয়েছে। ভরা কোটালের জলে নীচু এলাকায় জল জমেছে। তার জন্য বিদ্যুৎ বন্ধ রয়েছে বিস্তীর্ণ এলাকায়। বিপদের আশঙ্কায় বিদ্যুৎ বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আগামিকালও জোয়ার থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

     

     

    আগামিকাল থেকে পশ্চিমাঞ্চলের জেলা গুলিতে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি শুরু হবে। আজ রাতেই ঝাড়খণ্ডে প্রবেশ করছে ইয়াস। গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে সেটি। তার জেরেই পশ্চামাঞ্চলের জেলা পশ্চিম বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়ায় বৃষ্টি হবে। সঙ্গে বইবে ঝোড়ো হাওয়া। পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলির পাশাপাশি উত্তরের জেলাগুলিতেও বাড়বে বৃষ্টি।