শাসনে ছোট্ট সাহাদ আলির পিটিয়ে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুললো যুব ফেডারেশন

শাসনে ছোট্ট সাহাদ আলির পিটিয়ে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুললো যুব ফেডারেশন

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: শাসনের ফলতি গ্রামে মাছ চুরির সন্দেহে ৬ বছরের ছোট্ট সাহাদ আলির পিটিয়ে হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুললো সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশন। রবিবার দেগঙ্গায় সারা বাংলা সংখ্যালঘু কাউন্সিল ও সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের কর্মী সভায় এই দাবি তোলেন যুব ফেডারেশনের সহ সম্পাদক শিক্ষক আলি আকবর ও বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার সভাপতি আইনজীবী আব্দুল হান্নান। আইনজীবী আব্দুল হান্নান বলেন একটা মানুষ কতটা নিষ্ঠুর হলে তারপর একটা ছয় বছরের শিশুকে মানুষ পিটিয়ে মারে। শিক্ষক আলি আকবর বলেন তর্কের খাতিরে ধরে নিলাম শিশুটা মাছ ধরছিলো, একটা ছোট্ট ছেলে কত টাকার মাছ চুরি করেছে যে তাকে আছাড় মেরে মেরে ফেলতে হয়েছে। অবিলম্বে তার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে দোষী স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য ছিদ্দিক আলি ও তার আত্মীয়দের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক। যাতে পরবর্তীতে এমন অমানবিক কাজ করতে কেউ সাহস না পায়।

 

রবিবার দেগঙ্গা বাজারে অবস্থিত সংগঠনের ব্লক অফিসে এক কর্মী সভায় সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন সংখ্যালঘু কাউন্সিলের রাজ্য সহ সম্পাদক ডাঃ মনিরুল ইসলাম, সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সহ সভাপতি মাহমুদুল হাসান, উঃ ২৪ পরগনা জেলা সভাপতি সহিদুল ইসলাম, জেলা সম্পাদক তৈয়বুর রহমান, প্রাক্তন ব্লক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, হাফেজ খলিলুর জামান, দেগঙ্গা ব্লক সম্পাদক শিক্ষক আব্দুর রহমান সহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

 

এদিন কর্মী সভায় সংগঠনের প্রাক্তন ব্লক সভাপতি মহিদুল ইসলাম বৈদ্যের রুহের মাগফিরাত কামনায় বিশেষ দোয়া প্রার্থনা করা হয়। কর্মি সভা থেকে সারা বাংলা সংখ্যালঘু কাউন্সিলের ব্লক সভাপতি নির্বাচিত হন আলহাজ্ব হাফেজ খলিলুর জামান, সহ সভাপতি হন গোলাম রসুল ও সহিদ আলি, সম্পাদক নির্বাচিত হন রফিকুল ইসলাম সহ সম্পাদক নির্বাচিত হন ডাঃ গোলাম রহমান, মহঃ নাসির আলী।

 

সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের ব্লক সভাপতি নির্বাচিত হন আল আমিন হক, সহ সভাপতি নির্বাচিত হন শিক্ষক সাইফুদ্দিন ও সামিম মল্লিক, সম্পাদক পুনঃনির্বাচিত হন শিক্ষক আব্দুর রহমান, সহ সম্পাদক নির্বাচিত হন শিক্ষক কবিউল ইসলাম ও শিক্ষক হাসানুজ্জামান।

দুটি কমিটির কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হন হজরত আলি।  দুটি কমিটি আগামীতে  ব্লকের সংখ্যালঘু ছাত্র যুবদের অধিকার ও উন্নয়নের লড়াই ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার শপথ নেন।