সারদা কাণ্ডে নয়া মোড়: কুণাল ঘোষ ও শতাব্দী রায়ের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ইডির! 

সারদা কাণ্ডে নয়া মোড়: কুণাল ঘোষ ও শতাব্দী রায়ের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ইডির! 

 

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: সারদা-কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর মোড়। সামনেই তৃতীয় দফার নির্বাচন। আর সেই নির্বাচনের আগেই সারদা-কাণ্ডে অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ এবং তৃণমূল কংগ্রেসের বোলপুরের সাংসদ অভিনেত্রী শতাব্দী রায়ের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। ভোট চোলাকালীন এই সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক পদক্ষেপ বলে দাবি কুণাল ঘোষের।

 

 

ভোটের মুখে বাংলায় চিটফান্ড নিয়ে তৎপর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই এবং ইডি। সারদা সহ একাধিক মামলায় প্রভাবশালীদের জেরা করেছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাও। সারদাতেও তেমন ভাবে একাধিক প্রভাবশালীকে গত কয়েকদিন জেরা করেছেন গোয়েন্দারা। কিছু নির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে চলছে জিজ্ঞাসাবাদ। গত কয়েকদিন আগেই সারদা মামলায় কুণাল ঘোষকেও জেরা করা হয়। একাধিকবার তাঁকে জেরা করা হয়। এমনকি, মদন মিত্র সহ একাধিক তৃণমূল নেতাকে জেরা করা হয়।

 

ইতিমধ্যে সারদা থেকে নেওয়া টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন কুণাল ঘোষ। এরপরেও সূত্রের খবর যে, কুণাল ঘোষের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। ইতিমধ্যে সেই সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে খবর। একই সঙ্গে সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে শতাব্দী রায়েরও। তিনি সারদার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। বিশাল অংকের টাকাও পেতেন। ইতিমধ্যে তদন্তে সেই তথ্য হাতে পেয়েছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। জানা যাচ্ছে, কুণাল ঘোষের সঙ্গে অভিনেত্রী তথা সাংসদ শতাব্দী রায়েরও সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

 

 

তবে এখনও পর্যন্ত এই সংক্রান্ত কোনও তথ্য হাতে পাননি কুণাল। তিনি এক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে সারদা থেকে নেওয়া সমস্ত টাকা ফিরিয়ে দিয়েছি। যে সমস্ত টাকাতে ট্যাক্স দেওয়া হয়েছে তাও ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। নতুন করে সম্পত্তি কীভাবে বাজেয়াপ্ত করবে। তবে এই সংবাদ ঘিরে কার্যত সন্দেহ প্রকাশ করেন কুণাল। তবে তাও তিনি জানিয়েছেন, ভোট চলাকালীন যা হচ্ছে সব কিছুই রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। যদিও শতাব্দী রায়ের কোন প্রতিক্রিয়া এখন আসেনি।