হায়দ্রাবাদ থেকে নিজামি ও ওয়েইসিদের সংস্কৃতি মুছে যাবে: অসমের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে বিতর্ক

হায়দ্রাবাদ থেকে নিজামি ও ওয়েইসিদের সংস্কৃতি মুছে যাবে: অসমের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে বিতর্ক

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা রবিবার তেলেঙ্গানায় মুঘল, নিজাম এবং ওয়াইসির দলকে একযোগে নিশানা করলেন। হিমন্ত বলেন, ভারতের ইতিহাস বলছে, বাবর, ঔরঙ্গজেব, নিজামরা এদেশে বেশিদিন টিকতে পারেনি।এদিন তেলেঙ্গানার ওয়ারাঙ্গালে অসমের মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা বলেন, “৩৭০ ধারাকে মুছে ফেলা হয়েছে, রাম মন্দির নির্মাণ শুরু হয়েছে। এখান (হায়দরাবাদ) থেকেও নিজামের নাম, ওয়াইসির নাম বাদ চলে যাবে। সেদিন বেশি দূরে নেই।”

হেমন্তের বক্তব্য, এবার হায়দরাবাদে নিজামের পরম্পরা শেষ হবে। সনাতন ভারতীয় সংস্কৃতির উত্থান হবে। তেলেঙ্গানার টিআরএস শাসনকে কটাক্ষ করে অসমের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, তেলেঙ্গানায় আর একনায়কতন্ত্র চলবে না। যখনই একনায়ক কোনও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বা কোনও দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন, তখনই দেশে জরুরি অবস্থার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। বক্তব্যের শেষে নতুন তেলেঙ্গানা গড়ার বার্তা দেন হেমন্ত বিশ্ব শর্মা।

এদিকে অসমের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে খণ্ডন করে টুইট (Tweet) করেছেন টিআরএস বিধায়ক তথা তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের (K Chandrashekar Rao) মেয়ে কলভাকুন্তলা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লেখেন, “আপনার আজকের বক্তব্য থেকে স্পষ্ট, বিজেপি তেলাঙ্গানার গৌরবময় ইতিহাস মুছে ফেলতে চায়। আমি বিস্মিত হই ভেবে, যে আপনার দল বিজেপি কেন ঐক্যের ভাবনাকে এতটা ভয় পায়! আপনি ভুলে গেলেন, ২০১৮ সালে আপনারা কীভাবে ১০৭টি আসনেই হেরেছিলেন!”

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে তেলেঙ্গানায় বিজেপির প্রচারে আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সভামঞ্চ থেকে উপস্থিত জনতার উদ্দেশে শাহ বলেছিলেন, হায়দরাবাদকে নবাবি ও নিজামি সংস্কৃতি থেকে মুক্ত করুন। এদিন একই সুর দেখা গেল অসমের মুখ্যমন্ত্রীর গলাতেও।