কোনো ঢেউয়ের পূর্বাভাস নেই! ভারতে শেষের পথে করোনা মহামারি: বললেন হু-এর প্রধান বিজ্ঞানী

কোনো ঢেউয়ের পূর্বাভাস নেই! ভারতে শেষের পথে করোনা মহামারি: বললেন হু-এর প্রধান বিজ্ঞানী

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: মাঝে মধ্যে টুকটাক বাড়লেও ভারতে করোনার দৈনিক সংক্রমণ এখন একদমই নিয়ন্ত্রণে এসে গিয়েছে। গুটিকতক সংবাদমাধ্যমে দেশে কোভিডের তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়ে যাওয়ার কথা বলা হলেও পরিসংখ্যান কিন্তু সম্পূর্ণ উলটো কথা বলছে।

 

এই প্রেক্ষিতেই একটি সুখবর শোনালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-এর প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন । তাঁর মতে ভারতে ক্রমশ স্থানীয় রোগ হয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে কোভিড, অর্থাৎ কোভিড এখন থেকে এনডেমিক রোগের আখ্যা পেয়ে যেতে পারে। ফলত, মহামারি প্রায় শেষের পথেই বলে মনে করেন এই বিজ্ঞানী।

 

স্বামীনাথনের কথায়, কোনো রোগকে ‘‌এনডেমিক’‌ তখনই বলা হয়, যখন জনসংখ্যার বড়ো অংশ ভাইরাসকে সঙ্গে নিয়ে বাঁচতে শিখে ফেলে। মহামারির ক্ষেত্রে হয় ঠিক উল্টো। তখন জনসংখ্যার বড়ো অংশ ভাইরাসের গ্রাসে চলে আসে।

 

‘দ্য ওয়্যার‘কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই জানিয়েছেন স্বামীনাথন। ভারতের ব্যপ্তি এবং তার বিপুল জনসংখ্যার কথা মনে করিয়ে দেন স্বামীনাথন। তাঁর মতে, এ সব কারণে ভারতের এক এক অংশে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এক এক রকম।

 

এই বিজ্ঞানী আশাবাদী যে আপাতত ভারতে করোনা পরিস্থিতি যে রকম চলছে, সে রকমই চলবে। অর্থাৎ দেশের এক এক জায়গায় সংক্রমণ বাড়বে। কখনও কমবে। অর্থাৎ এই সংক্রমণের ওঠাপড়া লেগেই থাকবে।

 

ভারতে যে যে অঞ্চল প্রথম এবং দ্বিতীয় ঢেউয়ে কম প্রভাবিত হয়েছিল বা যেখানে টিকাকরণের গতি কম, সেখানে আগামী কয়েক মাস সংক্রমণ উঠতে পারে বলে মনে করেন স্বামীনাথন।

 

তৃতীয় ঢেউ নিয়ে নানা মুনির নানা মত থাকলেও স্বামীনাথনের সাফ কথা যে এ ভাবে কোনো ঢেউয়ের পূর্বাভাস দেওয়া যায় না। স্থানীয় ভাবে সংক্রমণ কোথাও কোথাও বাড়লেও দেশব্যাপী বড়ো রকম তৃতীয় ঢেউয়ের কোনো আশঙ্কা করছেন না তিনি। আর তৃতীয় ঢেউ এলেও শিশুরা বেশি আক্রান্ত হবে, এমন ভাবনাও অমূলক বলে জানিয়ে দিয়েছেন স্বামীনাথন।