তিন দফার ভোটের পরেও দল পরিবর্তন: তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক

    তিন দফার ভোটের পরেও দল পরিবর্তন: তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ইতিমধ্যে তিন দফার নির্বাচন হয়ে গিয়েছে। বাকি রয়েছে এখনও সাত দফার নির্বাচন। ঠিক ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন ইটাহারের বিদায়ী বিধায়ক তথা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান অমল আচার্য। তবে শুধু অমলই নন, জেলা পরিষদের প্রাক্তন সভাধিপতি বিনয় সরকার-সহ কয়েকশো তৃণমূল নেতা ও কর্মী এদিন যোগ দিলেন বিজেপিতে।

    জানা যায়, ইটাহারের উল্কা ক্লাবে বিজেপির রায়গঞ্জের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীর হাত থেকে বিজেপির পতাকা নেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান। অমল শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ নেত বলেই পরিচিত। শুভেন্দু দলবদলের ওই ক্লাবে ঘাস ফুলের পতাকা নামিয়ে খোলা হয় বিজেপি নয়া নির্বাচনী কার্যালয়। ভোটের আগে দলবদলে নিঃসন্দেহে বিজেপির শক্তিবৃদ্ধি হল।

    ২০১১ সাল থেকে বিধায়ক পদে রয়েছেন অমল আচার্য। কংগ্রেস ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে যোগ দেওয়ার পর থেকেই সামলেছেন জেলা সভাপতির পদ৷ তাঁর নেতৃত্বেই উত্তর দিনাজপুর জেলায় তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠন ফুলেফেঁপে ওঠে। ২০১৬ সালের নির্বাচনে একদা কংগ্রেসের গড় নামে পরিচিত উত্তর দিনাজপুর জেলায় ৯টি বিধানসভা আসনের মধ্যে পাঁচটিতে জয় লাভ করে তৃণমূল কংগ্রেস৷ এরপর জেলা সভাপতি পদ থেকে অমল আচার্যকে সরানো হলেও চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয় তাঁকে৷ রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যানের দায়িত্বেও ছিলেন অমল বাবু৷ তবে ছন্দপতন ঘটে ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর৷ দল এবার অমল আচার্যকে প্রার্থী না করার পর থেকেই ক্ষোভ উগরে দিতে শুরু করেন তাঁর সহস্রাধিক অনুগামীরা৷ পদত্যাগ করেন একাধিক ব্লক নেতৃত্ব।