১৫ কোটি টাকার গাড়ি, হাজার হাজার কোটি টাকা দিয়ে জেট বিমান কেনা প্রধানমন্ত্রী গরিব-বেকারের যন্ত্রণা বুঝতে পারেন না

১৫ কোটি টাকার গাড়ি, হাজার হাজার কোটি টাকা দিয়ে জেট বিমান কেনা প্রধানমন্ত্রী গরিব-বেকারের যন্ত্রণা বুঝতে পারেন না

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: মুখে মাস্ক। কাঁধের উপর থেকে ফেলা রয়েছে শাল। লোকসভায় বসে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর উল্টো দিকে দাঁড়িয়ে কংগ্রেসের দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী সরাসরি নিশানা করছেন সেই নরেন্দ্র মোদীকেই।
শুক্রবার লোকসভায় দাঁড়িয়ে মোদীকে আক্রমণের সময়ে বারাণসীতে গিয়ে ‘মুসলিমদের সঙ্গে অওরঙ্গজ়েবের তুলনা’র নিন্দা করেছেন অধীর। আবার কখনও চিনের অনুপ্রবেশ প্রসঙ্গে ‘মৌন’ থাকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। মোদী লোকসভা বা রাজ্যসভায় বিশেষ আসেন না বলে অভিযোগ তুলে তাঁর কটাক্ষ, ‘‘আজ এসে ধন্য করেছেন!’’

শুধু তা-ই নয়। নরেন্দ্র মোদীর সামনেই বিজেপিতে তাঁর অনুগামীদের সর্বক্ষণ ‘মোদী, মোদী’ আওড়ানোর জন্য ‘সাইকোপ্যাথ’ আখ্যা দিয়েছেন। প্রশ্ন করেছেন, এই মোদী নাম জপে কি মোদীজি খুশি হন! মোদীর দিকে তাকিয়েই বলেছেন, ‘‘আপনি নিজের জন্য ১৫ কোটি টাকার গাড়ি কেনেন, সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার বিমান কেনেন। তাই গরিব, বেকার মানুষের যন্ত্রণা বুঝতে পারেন না।’’

মোদী এক দৃষ্টিতে অধীরের দিকে তাকিয়ে সব শুনছেন। কিন্তু কিছুই বলেননি। বিজেপির মন্ত্রী, সাংসদেরাও মোটের উপরে চুপ। কারণ, স্পিকার ওম বিড়লা প্রথমেই বলে দিয়েছেন, রাষ্ট্রপতির বক্তৃতার ধন্যবাদ-জ্ঞাপন প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার গরিমা বজায় রেখে, কোনও হট্টগোল না করে কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতার বক্তৃতা শুনতে হবে। অনেকের অবশ্য ধারণা, অধীরের কটাক্ষের উত্তর সংসদে নিজের জবাবি-বক্তৃতার জন্য তুলে রাখলেন প্রধানমন্ত্রী।

অধীর প্রথমেই ইন্ডিয়া গেটে সুভাষচন্দ্র বসুর মূর্তি প্রতিষ্ঠার ঘোষণা নিয়ে মোদীকে নিশানা করেছিলেন। মনে করিয়ে দিয়েছিলেন, বিজেপি যাঁর পুজো করে, সেই ভি ডি সাভরকর হিন্দু মহাসভার হয়ে সুভাষের আজাদ হিন্দ ফৌজের বিরুদ্ধে ব্রিটিশদের সাহায্য করার ডাক দিয়েছিলেন। তার পরেই তিনি বলেন, মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসেকে বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা ঠাকুর ‘দেশপ্রেমী’ বলায় মোদী বলেছিলেন, তিনি প্রজ্ঞাকে কখনও ক্ষমা করতে পারবেন না। কিন্তু বাস্তবে কিছুই করেননি।