গ্লোবাল এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ডে পুরস্ক‍ৃত হলেন অধ্যাপক ডা: প্রণব কুমার ভট্টাচার্য

“গ্লোবাল এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড ফর লাইফ্ টাইম আ‍্যচি‍ভমেণ্ট ইন মেডিক্যাল সাইন্স” ফর দি এক্সেপনাল পারফরম্যান্স অ্যান্ড কন্ট্রিবিউশন ইন মেডিক্যাল সাইন্স এন্ড টিচিং, পুরস্কারে পুরস্ক‍ৃত হলেন অধ্যাপক ডা: প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য, ২০২১ এর শিক্ষক দিবসে ।

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ২০২১ এর ৫ই সেপ্টেম্বর, শিক্ষক দিবসে, মুম্বাই এর গ্লোবাল ডিজিটাল অ্যাকাডেমির দ্বারা আয়োজিত, মনোজ্ঞ এক ভার্চুয়্যাল গ্লোবাল ডিজিটাল টিচার এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে “গ্লোবাল এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড ফর লাইফ্ টাইম আ‍্যচি‍ভমেণ্ট ইন মেডিক্যাল সাইন্স ” ফর এক্সেপনাল পারফরম্যান্স ইন টিচিং অ্যান্ড কন্ট্রিবিউশন ইন দি মেডিক্যাল সাইন্স, পুরস্কারে পুরস্ক‍ৃীত হলেন ওয়েস্ট বেঙ্গল থেকে অধ্যাপক ডা: প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য । অধ্যাপক ডাক্তার প্রণব কুমার ভট্টাচার্য ছাড়াও ওয়েস্টবেঙ্গল থেকে আরো তিন জন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এই গ্লোবাল টিচার এক্সেলান্স অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। তারা হলেন ড: শ্যামসুন্দর আগরওয়াল, ড: নির্মলেন্দু পাল এবং ড: শিবেস মাইতি। শিক্ষাক্ষেমত্রের বিভিন্ন বিভাগে বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে অবদান এর জন্য ভারতবর্ষ এর প্রায় সমস্ত প্রদেশের শিক্ষাবিদরা ছাড়াও বিদেশের ফিলিপিন্স থেকে তিনজন, ভিজাকায়, ওমান, প্যালেস্টাইন, মায়নামার, নেপাল, কুয়ালালাপুর , মাদ্রিদ, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, কুয়েত, অস্ট্রেলিয়া, এই দেশ গুলো থেকেও বিভিন্ন শিক্ষাবিদদেরও পুরস্কৃত করা হয়েছে এই অনুষ্ঠানে। অধ্যাপক ডাক্তার প্রণব কুমার ভট্টাচার্যের এই পুরস্কারটি নিয়ে , ষোলোতম লাইফ্ টাইম আ‍্যচি্‍ভমেণ্ট পুরস্কারে পুরস্কৃীত হলেন। ডাক্তার অধ্যাপক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য, কোলকাতা স্কুল অব্ ট্রপিকাল মেডিসিনের প‍্যাথোলোজি বিভাগের সদ্য অবসর প্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ।
এর আগে ২০২১ এর জুন মাসে ডাক্তার ভট্টাচার্য পুরস্কৃত হয়েছিলেন ‘লাইফ টাইমঅ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার” , সাইন্স ফাদার অর্গানাইজেশনের “শেন ২০২১ লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্টঅ্যাওয়ার্ড -ইন্টারন্যাশনাল রিসার্চ আওয়ার্ড অন সাইন্স হেলথ অ্যান্ড ইঞ্জনিয়ারিং ফর আউটস্ট্যান্ডিং কন্ট্রিবিউশন ইন ইনোেটিভ রিসার্চ’ ইন কভিদ ১৯ ইন সাইন্স ম্যাগাজিন ।

২০২০-২১ সালে এর আগেও আটটি লাইফ টাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কারে পুরষ্কৃত হয়েছিলেন উনি। এ ছাড়াও এসেছে কানাডার ডক্টর চয়েস অ্যাওয়ার্ড ২০২১ এর জন্য নমিনেশন।

গ্রীন থিংক্নার জেড্ অর্গানাইজেশন,পাঞ্জাবের, পক্ষ থেকে ওনাকে দেওয়া হয়েছিল “টপ ফিফ্টি ইন্টারন‍্যাশনাল ডিসণ্টিগূঈস্ড আ‍্যকাডেমিক লিডার -২০২০ গোল্ড মেডাল পুরস্কার “; স্কলার্স আ‍্যকাডেমিক সায়েন্টফিক সোসাইটি,গৌহাটি, অসমের ,পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছিল”লাইফ্ টাইম আ‍্যচিভমেন্ট পুরস্কার -২০২০”। আই.টূ.ও. আর, চন্ডীগড় এর পক্ষ থেকে “আই.টূ.ও.আর ন‍্যাশনাল পুরস্কার -২০২০’। “নভেল রির্সাচ আ‍্যকাডেমি, পন্ডিচেরীর পক্ষ থেকে ” লাইফ্ টাইম আ‍্যচিভমেন্ট পুরস্কার২০২০-২১”এবং সাম্মানিক লাইফ ফেলোশিপ (H L F)। ইন্টারন‍্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অর্গানাইজড্ রিসার্চ, চন্ডীগড়, এর পক্ষ থেকে “লাইফ্ টাইম আ‍্যচি‍ভমেন্ট পুরস্কার -২০২০”। ইন্ডীয়া আইকনিক্ এডুকেশন আ‍্যওয়ার্ড, নিঊদিল্লীর,পক্ষ থেকে লাইফ্ টাইম আ‍্যচিভ্মেন্ট পুরস্কার ওনাকে দেওয়া হয়১৫ মার্চ ২০২১। ২০২১ এর ২৬ জুনে “সাইন্স ফাদার” অর্গানাইজেশন মিনাচিপুরাম, এর পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে “শেন লাইফ টাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার ২০২১”। এই নিয়ে ডাক্তার প্রফেসর প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য ষোলটি ভারতীয় এবং বিদেশী আ‍্যকাডেমিক অর্গানাইজেশন থেকে ‘লাইফ্ টাইম আ‍্যচিভমেন্ট পুরস্কারে ‘ ভৃষিত হলেন ২০১৭ সাল থেকে। এ ছাড়াও প্রফেসর ডাক্তার ভট্টাচার্য্য ২০১৬ সাল থেকে আরও বারোটা বিভিন্ন নামকরা ভারতীয় ও বিদেশের পুরস্কারে সম্মানিত হ‍‍য়েছিলেন ইতিপৃর্বেও। এইসব সাম্মানিক পূরস্কার গুলি তুলে দেওয়া হয়েছিল ডাক্তার প্রফেসার প্রণব কুমার ভট্টাচার্যের হাতে ওনার চিকিৎসা বিজ্ঞান, মহাকাশ বিজ্ঞান,পদার্থ বিজ্ঞানে ওনার অসাধারন নেত্রীত্ত, প্রভূত অবদান,অক্লান্ত পরিশ্রম, মেডিক‍্যাল পোষ্ট গ্রাজূয়েট এবং ডক্টরেট বিভাগে ওনার ৩৫ বছরের একনিষ্ঠ শিক্ষকতা,অধ‍্যাপনা, মৌলিক গবেষণা, দেশী এবং বিদেশী নামকরা বিভিন্ন ঈনডেক্সড্ জার্নালে গবেষণা পত্র প্রকাশনায় ওনার অসাধারণ ভুমিকা এবং পারির্দষীতার নিদর্শন হিসাবে,ও গত ৩৮ বছর ধরে ওনার কর্ম জীবনে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজের হাসপাতালে রোগীর পরিষেবাতে অসাধারণ কৃতিত্ত্বের স্বিকৃতি হিসাবে। ডাক্তার ভট্টাচার্য্য ২০২০-২১ সালে সারস্ কোভিড -2 কোরোনা ভাইরাস এর ওপরে বৃটীশ মেডিক্যাল জানার্লে ( দি. বি.এম.জে )ছয়টি গবেষণা পত্র( লেটার টু এডিটর,বা, রেপিড রেসপন্স হিসাবে) এবং পৃথিবী বিক্ষ‍্যাত আমেরিকান আসো্সিয়েসন ফর আড্ভাস্নমেন্ট অব্ সায়ন্স অর্গানাইজেশনর “সায়েন্স” জার্নালে দশটি গবেষণা পত্র প্রকাশ করেছেন ( ইলেকট্রনিক লেটার টৃূ এডিটর হিসাবে )। ওনার প্রকাশিত গবেষণা পত্রের বতর্মান সংখা এখন ৩২৮ । এর মধ্যে ২৭০ টিকে দেশের বা বিদেশের গবেষকরা তাদের গবেষণা পত্রে অথবা সম্পাদিত বইতে রেফারেন্স হিসাবে উল্লেখ ও করেছেন। ডাক্তার প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য ৭/৫১,পূর্বপল্লী, সোদপূর,উত্তর চব্বিশ পরগনার স্বগীর্য় ভোলানাথ ভট্টাচার্য্য এবং স্বগীর্য় বাণী ভট্টাচার্য্যের জৈষ্ঠ পুত্র এবং শ্রী রূপক ভট্টাচার্য্য, শ্রী ঋত্বীক ভট্টাচার্য্য ও শ্রীমতি ডালিয়া মুখার্জীর সর্ব জৈষ্ঠ ভ্রাতা এবং মহামায়াতলা,গড়িয়া নিবাসী শ্রীমতী উপাশণা ভট্টাচার্যের পিতা, কলকাতার সল্টলেক নিবাসী শ্রী বিনয় চক্রবতীর্ এবং প্রখ্যাত নিউরো সার্জন প্রফেসার ডাক্তার মনোজ ভট্টাচার্যের ভাগ্নে। ডঃ সুমিতা ভট্টাচার্য্য ওনার সহধর্মীনী।
২০১৯ সালের নভেম্বরে নোবেল প্রাইজ ডায়লগে(বার্লীনে অনূস্থিত হয়েছিল) বক্তব্য রাখতে আমণ্ত্রীত হয়েছিলেন নোবেল প্রাইজ অর্গানাইজেশনের পক্ষ থেকে উনি। ২০২০ তেও আমন্ত্রিত হয়েছেন ৯ অক্টোবরে অনুষ্ঠিত “নোবেল প্রাইজ টিচার্স সামিটে”, ‘নোবেল ঊইক ডায়লগে” ‘ দি চ‍্যালেন্জ অব লারনংী প্রসেস্ ” নোবেল প্রাইজ অর্গানাইজেশনের পক্ষে অন লাইন ভারচূয়াল কনফারেন্সে এবং যোগদান করেছিলেন। আমন্ত্রিত ছিলেন এবং যোগদানও করেছিলেন “দি ল‍্যানসেট জার্নাল” এবং “চাইনীজ আকাডেমি অব মেডিক্যাল সায়েন্সের” যৌথ আয়োজনে কোভিড -19 হেলথ কনফারেন্সে২৩-২৪ নভেম্বরে ২০২০। যোগদান করেছেন চারতম ইন্ডিয়ান মায়লোমা কংগ্রেস (লখনউতে)বক্তা হিসেবে, ৪৪তম মুম্বাই হেমাটোলজি কনফারেন্সে চেয়ার পারসন হিসেবে, মুম্বাই হেমাটোলজি গ্রুপের ২০২১ এ “চ্যালেঞ্জ ইন থালাসেমিয়া”রোগের ডায়াগনোসিস নিয়ে কনফোরেশন্স এ বক্তা, এবং ৫ তম বেঙ্গল সোসাইটি অফ হেমাটোলজি -২০২১তে চেয়ারপারসন হিসাবে।নিউ দিল্লীর রীফাসিমেন্টৌ ইন্টারন‍া‍‍্যশনালের “এশিয়ান বায়োগ্রাফী” ওনাকে “ইনটেলেক্টচৃয়াল অব দি ইয়ার -২০২০ এবং” গ্লোবাল আ‍্যচি্ভমেন্ট আ‍্যয়ওরড্” সম্মানে ভূষিত করবার জন্য ইচ্ছে প্রকাশ করে চিঠি দিয়েছিলো। চিঠি দিয়েছিলেন ইন্টারন‍্যাশনাল সোসাইটি ফর সায়েন্টেফিক নেট ওর্য়াক, চেন্নাই এর পক্ষ থেকে ওনাকে “আঊটস্টেন্ডিং লাইফ্ টাইম আ‍্যচিভমেন্ট পুরস্কার ইন মেডিসিন অব গোল্ডেন রিসার্চ প্রাইজ ২০২১এর ফেব্রুয়ারি তে উপস্থিত থেকে নেবার জন্য। “নোবেল প্রাইজ ” – “আউর প্ল্যানেট, আউর ফিউচার” ২৬-২৮ এপ্রিল ২০২১ এ অনুষ্ঠিত হয়েছিল সুইডেন থেকে ভার্চুয়াল কনফারেন্স এবং উনি যোগদান করেছেন সেই অনুষ্ঠানে একজন আমন্ত্রিত ডেলিগেট হিসেবে। ২০২১ এর ডিসেম্বরে, কানাডার ” ডক্টরস চয়েস অ্যাওয়ার্ড” এর জন্য ও উনি মনোনয়ন পেয়েছেন এই জুন মাসে।
পশ্চীমবঙ সরকারের, হেলথ ডিপার্টমেন্টএর অধীনে রাজ‍্য সরকারি মেডকেল এডুকেশন সার্ভিস (ডব্লিউ .বি .এম. এস )ক্যাডার এর চাকরি থেকে উনি অবসর নিয়েছেন ২০২১এর ৩১মার্চ এ স্কুল অব ট্রপিক্যাল মেডিসিন থেকে প্রফেসর হিসেবে ৬৫ বছর বয়েসে।