ভোটের আগের দিন বিজেপির হাতে আক্রান্ত নন্দীগ্রামের তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ মান্নার মৃত্যু

ভোটের আগের দিন বিজেপির হাতে আক্রান্ত নন্দীগ্রামের তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ মান্নার মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিক জনসভায় তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। সেই আশঙ্কাই সত্যি হল। নন্দীগ্রামের বয়ালে বিজেপির হামলায় জখম তৃণমূল কর্মী রবীন্দ্রনাথ মান্না শুক্রবার ভোরে মারা গেলেন। গত ২৭মার্চ রবীন মান্না-সহ তিনজন তৃণমূল কর্মীর উপর হামলা চালায় বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় রবীন মান্নাকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ ভোর সাড়ে চারটা নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ রাখছিলেন।

সূত্রের খবর তৃণমূলের জেলা সভাপতি সৌমেন মহাপাত্র এসএসকেএমে যাচ্ছেন তাঁর মরদেহ আনতে। সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ নন্দীগ্রামে দেহ পৌঁছাবে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান জানিয়েছেন, কলকাতা থেকে মৃতদেহ আসার পর নন্দীগ্রাম থানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভে বসবে তৃণমুল। মৃতদেহ নন্দীগ্রাম থানার সামনে রেখে বিক্ষোভ কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। দোষীরা গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত অবস্থান বিক্ষোভ চলবে বলে জানাচ্ছেন তিনি।

২৬ মার্চ রাতে বয়াল ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার তিন তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে হামলা চালানো হয়৷ ওই তৃণমূল কর্মীদের মারধরও করা হয় বলে অভিযোগ ছিল। আক্রান্তদের মধ্যে রবীন মান্না ছিলেন। তাঁর আঘাত গুরুতর হওয়ায় তাঁকে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে পাঠানো হয়৷ শেখ সুফিয়ান তখনই অভিযোগ করেন, ‘বিজেপি-র হার্মাদরা এই হামলা চালিয়েছে। বার বার পুলিশকে এদের নামে অভিযোগ করা হয়েছে, কিন্তু কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি৷’