তাবরেজের স্ত্রীর হুমকি ও নতুন মেডিক্যাল রিপোর্ট হাতে পেয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আবার খুনের মামলা শুরু

তাবরেজের স্ত্রীর হুমকি ও নতুন মেডিক্যাল রিপোর্ট হাতে পেয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আবার খুনের মামলা শুরু করল পুলিশ

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: আটদিন আগেই, ঝাড়খণ্ডে মুসলিম যুবক তবরেজ আনসারির গণপিটুনিতে অভিযুক্ত ১১ জনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ বাদ দিয়েছিল রাজ্য পুলিশ, বুধবার আবারও তাদের বিরুদ্ধে সেই অভিযোগ ফেরানো হল, নতুন গনপিটুনির মেডিক্যাল রিপোর্ট পাওয়ার পরেই এই অভিযোগ ফেরানো হয়েছে বলে রাঁচির এক আধিকারিক জানিয়েছেন।

একটি জাতীয় স্তরের টেলিভিশন চ্যানেলে দেখা গিয়েছিল, চুরির বদনাম দিয়ে তবরেজ আনসারিকে একটি খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রড দিয়ে মারা হচ্ছে, এবং “জয় শ্রীরাম” বলতে জোর করা হচ্ছে।

ওই আধিকারিক জানান, নতুন মেডিক্যাল রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে, বুধবার  সেরাইলকলা-খারসাওয়ান জেলায় সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট জমা দিয়েছে পুলিশ, তাতে অভিযুক্ত ১১ জনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ (খুন) ধারা যু্ক্ত করা হয়েছে।  বাকি দুই অভিযুক্তের বিরুদ্ধেও, তদন্ত শেষ করার পর খুনের অভিযোগ আনে পুলিশ।

গণহত্যা ঘটনায়, ১০ সেপ্টেম্বর, ১৩ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ বাতিল করে দেয় পুলিশ। তাবরেজের স্ত্রী হুমকি দেন তার স্বামীর হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ না আনলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। ২৪ বছর বয়সী যুবক তবরেজ আনসারির মেডিক্যাল রিপোর্ট এবং ফরেন্সিক পরীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে, বেদম গণপিটুনিতে আক্রান্ত হয়ে মস্তিষ্কের খুলি সহ একাধিক অঙ্গ অচল হয়ে হৃদরোগে তাঁর মৃত্যু হয়।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ৩০২ ও ৩০৪ ধারা প্রয়োগ করা হয়েছে। ৩০২ ধারায় মৃত্যুদণ্ডের সাজা অথবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং জরিমান, ৩০৪ ধারায় শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অথবা ১০ বছরের কারাদণ্ড অথবা জরিমানা, অথবা উভয়ই।