জুতোর নিচে ঠাকুর লেখা! উত্তরপ্রদেশে হাজতবাস হল মুসলিম হকারের

    জুতোর নিচে ঠাকুর লেখা! উত্তরপ্রদেশে হাজতবাস হল মুসলিম হকারের

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: লেখা জুতো বিক্রি করাই কাল হয়ে দাঁড়াল এক মুসলিম হকারের জীবনে। যোগী প্রশাসনের নির্দেশে হাজতবাস হ’ল তাঁর। উত্তরপ্রদেশের বুলন্ডশহরে রাস্তার ধারে এই জুতো বিক্রি করার সময়ই তাঁকে ধরে নিয়ে যায় পুলিশ।

    জানা গিয়েছে, নাসির নামে ওই হকারের বিরুদ্ধে স্থানীয় বজরঙ্গ দল থানায় অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ, যে জুতো নাসির বিক্রি করছিল তার সোলের মধ্যে লেখা ছিল ঠাকুর।

    বিশাল চৌহান নামে বজরং দলের এক সদস্য হকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেই অভিযুক্ত দোকানদারকে গ্রেপ্তার করে যোগী পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে সম্প্রীতি নষ্টের অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩এ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে সেই সঙ্গে শান্তিভঙ্গ এবং ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগও রয়েছে।

    কেন জুতোতে ঠাকুর লেখা ছিল, তার উত্তরে নাসির জানিয়েছেন, তিনি অন্যত্র থেকে পাইকারি হিসাবে জুতো কিনে এনে এখানে বিক্রি করেন। আসলে যাঁরা জুতো তৈরি করেছেন তাঁদের পদবি ঠাকুর বলে জুতোতে ‘ঠাকুর’ শব্দটা লেখা ছিল। কিন্তু এর জন্য তাঁর কোনও দোষ নেই।