আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টনের জুনিয়রে ভারতীয় মহিলা হিসাবে প্রথম ব়্যাঙ্ক করে রেকর্ড গড়লেন তাসনিম মীর

আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টনের জুনিয়রে ভারতীয় মহিলা হিসাবে প্রথম ব়্যাঙ্ক করে রেকর্ড গড়লেন তাসনিম মীর

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টনে জুনিয়র ব়্যাঙ্কিংয়ে (International Junior Badminton Ranking) ভারতের লক্ষ্য সেন, সিরিল বর্মা ও আদিত্য জোশীরা বিশ্বের পয়লা নম্বর স্থান অর্জন করেছিলেন। কিন্তু ভারতীয় মহিলা জুনিয়র ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার হিসেবে বিশ্ব জুনিয়র ব়্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান এতদিন অধরাই ছিল ভারতীয় মহিলা জুনিয়র ব্যাডমিন্টন প্লেয়ারদের কাছে। অলিম্পিকে পরপর দুবার পদক জয়ী পিভি সিন্ধুও জুনিয়র পর্যায়ে সর্বোচ্চ দ্বিতীয় স্থান পর্যন্ত অর্জন করতে পেরেছিলেন। ২০১১ সাল থেকে জুনিয়র টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ায় সাইনা নেহওয়াল ব়্যাঙ্কিংয়েক আসর সুযোগই পাননি। কিন্তু এবার সেই স্বপ্ন পূরণ করলেন গুজরাটের ১৬ বছরের তাসনিম মির (Tasnim Mir)। প্রথম ভারতীয় জুনিয়র মহিলা ব্যাডমিন্টব প্লেয়ার (Indian Junior Womens Badminton Players) হিসেবে অনূর্ধ্ব-১৯ ব্যাডমিন্টনের বিশ্ব ব়্যাঙ্কিংয়ে ১ নম্বর স্থান অর্জন করলেন তিনি।

 

১৩ মে ২০০৫ সালে গুজরাটে (Gujarat)জন্মগ্রহণ করেন তাসনিম মির। বাবা ইরফান মির পুলিসে চাকরি করেন। গুজরাটের মেহসানা থানার এএসআইয়ের মেয়ে তাসনিম। খেলাধুলার পরিবেশেই ছোট থেকে বড় হয়েছেন তিনি। বাবাও পুলিসে চাকরি করলেও ব্যাডমিন্টন (Badminton) খেলতে পছন্দ করেন। বাবার হাত ধরেই ব্য়াডমিন্টনে হাতেখড়ি হয় তাসনিমের। তার ভাইও ই মহম্মদ আলি মিরও ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার। রাজ্যস্তরে খেলেন তিনি। চ্যাম্পিয়নও হয়েছেন। বর্তমানে ভাই-বোন দুজনেই গুয়াহাটিতে প্রফেশনাল ট্রেনিং সারছেন। গত বছর আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় তিনটি পদক পান তাসনিম। তার ফলে ক্রমতালিকায় তিন ধাপ উঠে শীর্ষস্থান দখল করেছেন তাসনিম মির। প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবে এই কৃতিত্ব অর্জন করতে পেরে খুশি তাসনিম মির। মেয়ের কৃতিত্বে গর্বিত পরিবারও।

 

জুনিয়র ব্য়াডমিন্টন ব়্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান অর্জন করার পর নিজের ভবিষ্যৎ টার্গেটও স্থির করে ফেলেছেন তাসনিম মির। জুনিয়র ব্যাডমিন্টন তারকা সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন,’আমি সত্যিই এটা ভাবতে পারিনি। কোভিডের কারণে বেশ কিছু টুর্নামেন্ট বাতিল হওয়ায় ক্রমতালিকায় এগনোর সুযোগ কম ছিল। কিন্তু বুলগেরিয়া, ফ্রান্স ও বেলজিয়ামে আমি জিতেছিলাম। তাই তালিকায় এগিয়েছি। এখন থেকে আমি সিনিয়র প্রতিযোগিতার দিকে নজর দেব। আগামী মাসে ইরান ও উগান্ডাতে টুর্নামেন্ট আছে। সিনিয়র র‌্যাঙ্কিং ভাল করা আমার লক্ষ্য। এই বছরের শেষে বড়দের ক্রমতালিকার প্রথম ২০০-র মধ্যে ঢোকার চেষ্টা করব।’ নবীন প্রতিভাকে ভবিষ্যতের জন্য আগাম শুভেচ্ছা জানিয়েছে দেশের ব্য়াডমিন্টন থেকে শুর করে অন্যান্য ক্রীড়া মহল।