দিল্লির রাজনীতি থেকে সরে আসার ইচ্ছা! মানস ভূঁইয়া ইস্তফা দিচ্ছেন সাংসদ পদ থেকে

দিল্লির রাজনীতি থেকে সরে আসার ইচ্ছা! মানস ভূঁইয়া ইস্তফা দিচ্ছেন সাংসদ পদ থেকে

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: দিল্লির রাজনীতি ছেড়ে ফের ফিরেছেন রাজ্য রাজনীতিতে। সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা ভোটে নিজের খাসতালুক সবং থেকে ফের একবার জয়ী হয়ে বিধায়ক হয়েছেন। সোমবার রাজভবনে মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন। রাজ্যে পালা বদলের পরে ২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম মন্ত্রিসভায় কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সেচ মন্ত্রীর দায়িত্ব সামলেছিলেন। এবার অবশ্য জলসম্পদ উন্নয়ন দফতর সামলানোর দায়িত্ব বর্তেছে বর্ষীয়ান নেতার কাঁধে।

মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পরেই রাজ্যসভার সাংসদ পদে ইস্তফা দিচ্ছেন তিনি। শিগগিরই রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডুর কাছে নিজের পদত্যাগ পত্র পাঠাবেন বলে জানিয়েছেন।

২০১৬ সালে সবং থেকে কংগ্রেসের টিকিটে জেতার পরেই পরিষদীয় দলনেতার দায়িত্ব না পাওয়ার অভিমানে দলের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক চুকিয়ে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে নাম লিখিয়েছিলেন। ২০১৭ সালের অগস্ট মাসে বিধায়ক পদে ইস্তফা দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে রাজ্যসভা ভোটে লড়েছিলেন। অনায়াসেই জিতে যান। আগামী ২০২৩ সালের ১৮ অগস্ট রাজ্যসভার সাংসদ পদে মেয়াদ রয়েছে তাঁর। কিন্তু বিধায়ক তথা মন্ত্রী হওয়ার ফলে রাজ্যসভার সাংসদ পদে ইস্তফা দিতে হবে।

 

বিধানসভার সচিবালয় থেকে জানা যাচ্ছে, কোনও সাংসদ যদি বিধায়ক নির্বাচিত হয়ে শপথ নিয়ে নেন তবে পরবর্তী দু’সপ্তাহের মধ্যে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেওয়া বাধ্যতামূলক। অর্থা‍ৎ আগামী ১৯ তারিখের মধ্যে ইস্তফা দিতে হবে রাজ্যের নতুন জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রীকে।