পাপের ফল! সু চিকে আমৃত্যু কারাগারে রাখার ব্যবস্থা করছে মিয়ানমারের সামরিক সরকার

পাপের ফল! সু চিকে আমৃত্যু কারাগারে রাখার ব্যবস্থা করছে মিয়ানমারের সামরিক সরকার

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: পাপের ফল তো ভুগতেই হবে! তার শাসনকালে মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর অমানবিক নির্যাতন পৃথিবী দেখেছে। অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে দেশ ছেড়েছে লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গা, প্রান হারিয়েছে হাজার হাজার শিশু নর নারী। তারা এখন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে উদ্বাস্তু। সেই আন সান সুকির কর্মফল তাকে ভোগ করতে হচ্ছে। প্রথমে ক্ষমতাচ্যুত তারপর কারাবাস। এবার নতুন করে দুর্নীতির আরও চারটি অভিযোগ আনা হয়েছে মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত রাজনৈতিক নেত্রী অং সান সু চিকে বিরুদ্ধে।এসব মামলায় আগামী ১ অক্টোবর রাজধানীর নেপিদোতে তার বিচারকাজ শুরু হবে।

ইতোমধ্যে সু চির বিরুদ্ধে যেসব মামলা চলছে তার পাশাপাশি এসব অভিযোগের বিচারে সেনা সরকারের পক্ষে রায় এলে আমৃত্যু কারাগারে থাকতে হতে পারে সু চিকে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী খিন মং ঝাও।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘শান্তিতে নোবেল জয়ী ৭৬ বয়সী গৃহবন্দি সু চির বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির বিচারকাজ দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রতিটির জন্য ১৫ বছরের সাজা হতে পারে তার।’

উল্লেখ্য, ১ ফেব্রুয়ারি ক্ষমতা হারানো পর সু চির বিরুদ্ধে তখন থেকেই বেশ কয়েকটি মামলা চলছে। এর মধ্যে গত বছরের নির্বাচনে করোনার বিধিনিষেধ লঙ্ঘন এবং অবৈধভাবে ওয়াকিটকি আমদানি ও রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করেছে সেনা সরকার।