এতদিন বিজেপি সরকারকে সমর্থন করে থাকা মণিপুরের তৃণমূল বিধায়ক এবার সরাসরি যোগ দিলেন বিজেপিতে

এতদিন বিজেপি সরকারকে সমর্থন করে থাকা মণিপুরের তৃণমূল বিধায়ক এবার সরাসরি যোগ দিলেন বিজেপিতে

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: সামনেই মণিপুর বিধানসভা নির্বাচন। ফেব্রুয়ারি মাসের ২৭ তারিখ ও মার্চের ৩ তারিখ ৬০ বিধানসভা আসনে মণিপুরে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন নাগরিকরা। বেশ কিছুদিন ধরে ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে জাতীয় রাজনীতিতে ভিত শক্ত করতে মরিয়া তৃণমূল। গোয়া, হরিয়ানা, ত্রিপুরা, মেঘালয়ের মতো রাজ্যগুলিতেও পা ফেলেছে বাংলার শাসক দল। তবে নির্বাচনের আগে মণিপুরে বড়সড় ধাক্কা খেল তৃণমূল। মণিপুরে দলে একমাত্র বিধায়ক টংব্রাম রবীন্দ্র সিং শেষমেশ শাসক বিজেপিতে যোগদান করলেন। বৃহস্পতিবার গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন টংব্রাম রবীন্দ্র সিং।

২০১৭ সালের মণিপুর বিধানসভা নির্বাচনে থাঙ্গা বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের টিকিটে জিতেছিলেন টংব্রাম রবীন্দ্র সিং। পরবর্তীকালে তিনি বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট সরকারকে সমর্থন করেন। গতমাসেই কংগ্রেস ছেড়ে আসা নেতা ইয়েংখোম সুরচন্দ্র সিংও এদিন পদ্ম শিবিরে নাম লিখিয়েছেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক এবং অসমের মন্ত্রী অশোক সিংহলের উপস্থিতিতে তাঁরা গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন। বিজেপির যোগদান অনুষ্ঠানে মণিপুর বিজেপি সভাপতি অধিকারীমায়ুম শারদা দেবীও উপস্থিত ছিলেন। টুইট করে এই যোগদানের কথা জানিয়েছেন বিজেপি সভাপতি। বিজেপি সভাপতি মতে এই দুই নেতার বিজেপিতে যোদদান রাজ্যের উন্নয়নের নিরিখে ইতিবাচক পদক্ষেপ এবং এরফলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিংয়ের ওপর আস্থা প্রকাশিত হয়েছে।

সদ্য তৃণমূলত্যাগী টংব্রাম রবীন্দ্র সিং জানিয়েছে বিজেপি নেতৃত্বের প্রতি তাঁর পূর্ণ আস্থা রয়েছে এবং দলের কাজ করার জন্য তিনি মুখিয়ে রয়েছেন। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের নির্বাচনে কাকচিং বিধানসভা কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের টিকিটে জিতেছিলেন সুরচন্দ্রা। তবে হলফনামাতে নিজের সম্পতি সংক্রান্ত তথ্য ভুল দেওয়ার অভিযোগে মণিপুর আদালতের নির্দেশে তাঁর বিধায়ক পদ খারিজ হয়ে যায়।