Categories
রাজ্য

এবার ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ঘর দেবে ওয়াকফ বোর্ড: ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

এবার ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ঘর দেবে ওয়াকফ বোর্ড: ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

 

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ভাতা চালু করে রাজ্যজুড়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছিল যদিও সেই ভাতা ওয়াকফ বোর্ড দেয়। এবার রাজ্য সরকারি তহবিল থেকে রাজ্যের কিছু পুরোহিতদের ভাতা ও বাড়ি করে দেওয়ার প্রকল্প নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার দুর্গা পুজো কমিটির সদস্যদের নিয়ে বৈঠকে এই পুরোহিতের একাংশের হাতে চেক ও বাড়ির জন্য অনুমতি পত্র তুলে দেন।

 

সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দেন ইমাম-মুয়াজ্জিনরা চাইলে পুরোহিতদের মতো ঘর পেতে পারেন। এর জন্য তাদের ওয়াকফ বোর্ডে আবেদন করতে হবে। ওয়াকফ বোর্ড তাদের ঘর করে দেবে। এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন আমরা হিন্দু মুসলমান বিভাজন করি না।

 

আমাদের কাছে সকলেই সমান তাই শুধু হিন্দু পুরোহিত নয়, আমাদের কাছে যারা সাহায্যের জন্য আবেদন করবেন আমরা সবাইকে যতক্ষণ ক্ষমতা থাকবে সাহায্য করবো আমাদের কাছে কোন ভেদাভেদ নেই সবাই সমান।

 

 

এদিন মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন করোনাকালে যেভাবে বাংলার মানুষ জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে এক সঙ্গে লড়াই করেছেন তার প্রশংসা করতেই হবে তিনি বলেন করোণা আবহে দুটি ইদ সম্পন্ন হয়েছে। রাজ্যের সংখ্যালঘু মুসলমানরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যেভাবে অনাড়ম্বর ভাবে বাড়িতে ঈদ পালন করেছে তা প্রশংসনীয়। করোনার কারণে আমরা অনেক কিছুই করতে পারিনি তাই আগামীতেও সাবধানতা জরুরি। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সকলের সহযোগিতা দরকার সকলে মিলে লড়াই করলে করোনার বিরুদ্ধে আমাদের জয় সুনিশ্চিত হবে।

 

প্রসঙ্গত সরকারি তহবিল থেকে পুরোহিত ভাতা ও ঘর দেয়ার ঘোষণা করা হলে সংখ্যাগুরু ও সংখ্যালঘু উভয় সম্প্রদায়ের ধর্মগুরুদের সমান ভাতা, সম্মান ও স্বীকৃতি দেওয়ার আবেদন জানিয়ে সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহঃ কামরুজ্জামান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে এক চিঠি লেখেন।

 

চিঠিতে তিনি পুরোহিতদের পাশাপাশি মসজিদের ইমাম, খ্রিস্টান ধর্মের গির্জার ফাদার, বৌদ্ধ মন্দিরের ভিক্ষু, শিখ ধর্মের গুরুদুয়ারার প্রধান পরিচালককেও সরকারি তহবিল থেকে মাসিক এক হাজার টাকা ভাতা ও আবাস যোজনা থেকে বাড়ির ব্যবস্থা করার দাবি জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *