জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকান্ডের নায়ক ডায়ারের হত্যাকারি বিপ্লবী উধম সিংয়ের আত্মবলিদান দিবসে শ্রদ্ধা নিবেদন

জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকান্ডের নায়ক ডায়ারের হত্যাকারি বিপ্লবী উধম সিংয়ের আত্মবলিদান দিবসে শ্রদ্ধা নিবেদন

বঙ্গ রিপোর্ট ডিজিটাল ডেস্ক: উধাম সিং, (২৬ ডিসেম্বর ১৮৯৯ – ৩১ জুলাই ১৯৪০) ছিলেন ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন ব্যক্তিত্ব ও অগ্নিযুগের শহীদ বিপ্লবী। ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগে মাইকেল ও’ ডায়ার হত্যাকান্ড ঘটানোর প্রতিশোধ নেয়ার জন্যে বিপ্লবী উধম সিং ১৯৩৪ সালে লন্ডন যান এবং পরিকল্পনা করতে থাকেন ।  একুশ বছর পর ১৯৪১ সালের ১৩ই মার্চ ক্যাক্সটন হলে একটি জনসভায় পাঞ্জাবের বীর যুবক সর্দার বিপ্লবী উধম সিং সে সময় থেকে পঁচিশ বছরের পুরাতন রিভলবার এবং সেরকম পুরানো কর্তুজ দিয়ে ও’ ডায়ারকে হত্যা করেন। এ সময় তিনি পালিয়ে যাওয়ার কোন চেষ্টাই করেনি। উধম সিং আদালতে বলেন তাঁর নাম-রাম মুহম্মদ সিং আজাদ। সেই বছরই ৩১ জুলাই ইংল্যান্ডে উধম সিংকে ফাঁসি দেওয়া হয়।

১৯১৯ সালের ১৩ এপ্রিল অমৃতসরের জালিয়ানওয়ালাবাগ(ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের অমৃতসরে অবস্থিত এই জালিয়ানওয়ালাবাগ। সেই জন্যই এটিকে অমৃতসর ম্যাসাকার নামেও অভিহিত করা হয়) নামে একটি উদ্যানে মহিলা ও শিশুসহ সহস্রাধিক মানুষ সমবেত হয়। সভা শুরু হওয়ার আগেই জেনারেল ও’ডায়ারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বিনা প্ররোচনায় সভাস্থলে গুলিবর্ষণ করে। উদ্যানটি আবদ্ধ হওয়ায় সমবেত জনতার বের হওয়ার পথ ছিল না। এতে শতাধিক পুরুষ, মহিলা ও শিশু নিহত হয়। ১০ থেকে ১৫ মিনিট অবিরাম গুলীবর্ষিত হয়। ১০ থেকে ১৫ মিনিট বিরতিহীনভাবে গুলীবর্ষণ করতে করতে যখন গুলী ফুরিয়ে যায় তখন তারা গুলীবর্ষণ বন্ধ করতে বাধ্য হয়। এই ভয়াবহ গণহত্যায় ৩৭৯ ব্যক্তি মারা যান এবং ১৫২৬ ব্যক্তি আহত হন। এই হত্যাকান্ডটি ছিল সম্পূর্ণ পূর্বপরিকল্পিত। এ সময় ঘটনাটি দূর থেকে প্রত্যক্ষ করেন ভারতীয় বিপ্লবী উধম সিং।

জালিয়ানওয়ালাবাগে যে গুলীবর্ষণ হয়েছিল সেই গুলীবর্ষণের আগে জেনারেল ডায়ারের উদ্যোগে তাদেরকে সমাবেশ ভঙ্গ করতে বলেননি, সেটিকে ছত্রভঙ্গ করারও চেষ্টা করেননি, কোনরূপ সতর্ক সংকেত দেননি, এমনকি কোনো ফাঁকা গুলীও ছোঁড়েননি। পরবর্তীকালে এই হত্যাকান্ডের বিচারের জন্য ব্রিগেডিয়ার ডায়ারকে যখন আদালতে তলব করা হয়, তখন মিঃ ডায়ার স্বীকার করেন যে, হত্যা করার উদ্দেশ্যেই তিনি গুলীবর্ষণের নির্দেশ দিয়েছিলেন। তিনি স্বীকার করেন যে, গুলী না চালিয়েও তিনি ঐ সভাকে ছত্রভঙ্গ করতে পারতেন। কিন্তু তিনি জানতেন যে, ছত্রভঙ্গ করলে ওরা পরে কোনো এক সময় আবার ফিরে এসে সভা করবে। তাই তিনি গুলী চালানোর হুকুম দিয়েছিলেন।

উধম সিং, ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ভারতীয় জনগণের সংগ্রামের এক প্রতিবাদী নাম। তিনি ছিলেন ভগত সিঙের উত্তরসূরি। তার আত্মত্যাগ সাম্রাজ্যবাদ, সামন্তবাদ বিরোধী শ্রেণী সংগ্রামে বিপ্লবী হয়ে উঠার শিক্ষা দেয়।