ভারতীয় পড়ুয়াদের পণবন্দি করেছে ইউক্রেন সেনা! রাশিয়ার দাবি ঘিরে বাড়ছে উদ্বেগ

ভারতীয় পড়ুয়াদের পণবন্দি করেছে ইউক্রেন সেনা! রাশিয়ার দাবি ঘিরে বাড়ছে উদ্বেগ

 

নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: বুধবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে কথা বলার সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদী ইউক্রেন থেকে ভারতীয়দের সরাতে রাশিয়ার সাহায্য চান। পরে রাশিয়া জানায়, তাদের সেনা ইউক্রেন থেকে ভারতীয়দের উদ্ধারে সাহায্য করার চেষ্টা করছে, কিন্তু ইউক্রেনীয়রা সেখানে ভারতীয়দের পণবন্দি করছে। অন্যদিকে এদিন সকালে ২২০ জন ভারতীকে নিয়ে ভারতীয় বায়ু সেনার বিমান গাজিয়াবাদের হিন্দন এয়ার বেসে এসে পৌঁছেছে।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রকেরও দাবি, যে সব ভারতীয় পড়ুয়া ইউক্রেন ছেড়ে রাশিয়ায় যেতে চাইছেন, তাঁদের খারকিভে আটকে রাখা হয়েছে। রাশিয়ায় পৌঁছতে পারলেই তাঁদের বাড়ি ফেরানো হবে।ইউক্রেনের সেনাবাহিনী ভারতীয় পড়ুয়াদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে বলে দাবি করল রাশিয়া।

আজ দিল্লির রুশ দূতাবাস টুইটারে লিখেছে, ‘‘সাম্প্রতিক তথ্য অনুযায়ী, ইউক্রেনের নিরাপত্তা বাহিনী এই ছাত্রছাত্রীদের পণবন্দি করেছে এবং তাঁদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে। যে কোনও উপায়ে তাঁদের রাশিয়া যেতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এর সম্পূর্ণ দায় কিভের।’’ রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রকেরও দাবি, যে সব ভারতীয় পড়ুয়া ইউক্রেন ছেড়ে রাশিয়ায় যেতে চাইছেন, তাঁদের খারকিভে আটকে রাখা হয়েছে। রাশিয়ায় পৌঁছতে পারলেই তাঁদের বাড়ি ফেরানো হবে।

বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের ইঙ্গিত, খারকিভ থেকে পড়ুয়ারা নিরাপদ জায়গায় পৌঁছে গেলে, সেখান থেকে রাশিয়ার সেনার সাহায্যেই তাঁদের ইউক্রেন সীমান্ত পার করিয়ে রাশিয়ায় নিয়ে আসা যেতে পারে। এর জন্য ইউক্রেনের রাজধানী কিভের ভারতীয় দূতাবাসের কর্মীদের একটি ছোট দল দেশের পূর্বে, রাশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকায় পৌঁছনোর চেষ্টা করছে। উল্টো দিকে মস্কোয় ভারতীয় দূতাবাসের কর্মীরা ইউক্রেন সীমান্তবর্তী রাশিয়ার বেলগর্ড ও কুর্স্ক শহরে পৌঁছে গিয়েছেন।

এরই মধ্যে আজ ইউক্রেনে ২২ বছরের ভারতীয় ছাত্র চন্দন জিন্দালের হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে। পঞ্জাবের বার্নালার চন্দন ভিনিতসিয়ায় মেডিক্যাল কলেজে পড়তেন। বেশ কিছু দিন ধরেই তিনি হাসপাতালে আইসিইউ-তেএ ভর্তি ছিলেন। তাঁর বাবা শিশন কুমারও ওখানেই রয়েছেন। তিনি রোমানিয়া হয়ে ছেলের দেহ ফিরিয়ে আনার চেষ্টা শুরু করেছেন। কিন্তু গত রবিবার রাশিয়ার গোলায় নিহত নবীন শেখরাপ্পার দেহ খারকিভ হাসপাতালের মর্গ থেকে দেশে ফেরানো সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্রের বক্তব্য, সব রকম চেষ্টা করা হবে যাতে নবীনের দেহ ফিরিয়ে আনা যায়। জনপদের যে কোনও একটিতে পৌঁছে যেতে হবে।