হেরে যাবে বলে মানুষকে খেপিয়ে তুলছেন! শীতলকুচি ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় মমতা ব্যানার্জিকে গৃহবন্দি করার দাবি দিলীপ ঘোষের

    হেরে যাবে বলে মানুষকে খেপিয়ে তুলছেন! শীতলকুচি ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় মমতা ব্যানার্জিকে গৃহবন্দি করার দাবি দিলীপ ঘোষের

    নিউজ ডেস্ক বঙ্গ রিপোর্ট: শীতলকুচির গুলিকাণ্ডের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে গৃহবৃন্দি করার দাবি তুললেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বললেন, ‘বুঝতে পেরেছেন হেরে যাবেন, তাই মানুষকে খেপাতে শুরু করেছেন’।

    চতুর্থ দফায় ভোটে রক্তাক্ত বাংলা। শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে ৪ জনের মৃত্যু। তোলপাড় গোটা রাজ্য। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ইস্তফার দাবি তুলে সিআইডি-কে ঘটনার তদন্তভার দিয়েছেন মমতা। তাঁর সাফ কথা, ‘আজকের ঘটনার জন্য দায়ী অমিত শাহ। উনিই ষড়যন্ত্রকারী। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দায়ী করব না। তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে চলে। নির্বাচন কমিশনের কথায় চললেও ওরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনে। এখানে অঘোষিত ৩৫৬ করে কাজ চলছে’।

    তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে পাল্টা সুর চড়িয়ে এবার মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ। বললেন ‘যাঁরা মারা গিয়েছেন, তাঁদের মৃত্যুর দায় পুরোপুরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তিনি মানুষকে আহ্বান জানিয়েছেন, সেন্ট্রাল ফোর্সকে ঘিরতে, ইভিএম আটকাতে’। তাঁর অভিযোগ, ‘সমাজ বিরোধীরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে ভোট করত। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খেপিয়েছেন। তারা সেন্ট্রাল ফোর্সের উপর হামলা করেছে। গুলি খেয়েছে। আমার মনে হয়, ওঁর বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা হওয়া উচিত। প্রচার থেকে সরিয়ে গৃহবন্দি করে রাখা দরকার’।